বীরঙ্গনা —–বিলাস দাস

0
4

 

তুমি-আমি কাকে  করছি  বিদ্রুপ

আমরা  কি দেখেছি তাঁদের

সেই কালো  রাতের রক্তাত্ব রূপ।

 

যারা পৈচাষিক সঙ্গে বিলিয়ে অঙ্গ

এনেছে এ বাংলায় স্বাধীনতা

আজ অনায়াসে ভুলতে বসেছি

মায়েদের সেই করুন কথা।

 

শুধু মুঠো কাগজের পাতায় হয়েছে স্থান

বিনিময়ে  জয় করেছে,

অভাব,দারিদ্র্যে আর কলঙ্কিত জীবন।

 

যুগ যুগান্তর পেড়িয়ে হয়েছে কুব্জ্য

তাঁরা-নানা প্রশ্নের ভারে

কেউ বা দিয়েছে প্রাঁণ

কেউবা আবার থমকে দাড়িয়ে

জীবনের অন্তিম কিনারে।

 

তুমি-আমি শুধুই শুনেছি তাঁদের-

রক্তাত্ব আর অভিশপ্ত কাহিনী,

বিনিময়ে এ মাটি তাঁদের দিয়েছে কি

সে কথা একবারো ভাবোনি।

 

লক্ষ প্রাঁণ বাঁচাতে হায়েনার মাঝে

বিলিয়েছে সম্ভ্রম,অভিলাষ,অঙ্গ

ভেবে নাও তাঁরা আমাদেরই স্বরূপ

তবুও তাঁদের দিয়েছো কি সঙ্গ?

 

একাত্তরের ভয়াল রাতে স্বজন

সমাজ আর প্রীতি হাড়িয়ে

ঝিলের পাড়ের তাল গাছটির মত-ই

নিবৃত্তে  রয়েছে শত বিরঙ্গনা দাড়িয়ে।

 

কত না হারিয়ে- বিলিয়ে

এনেছিল এ বাংলায় স্বাধীনতা

যদিও তোমাতে কিছু নেয় কেরে

দিওনা তাঁদের ব্যাথা।

 

অনেক আশা নিয়া মরনকে করেনি বরন

কুড়িয়েছে শুধুই লাঞ্চনা,বর্জনা

কোথাও হয়নি তাঁদের ঠাই

এ সমাজ ডাকছে তাঁদের “বীরঙ্গনা”!

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here