অপহৃত  তানজিলার  ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন

3

মোঃ খালেদ মোশাররফ সোহেল,আমতলী প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলী সরকারী কলেজের ডিগ্রীপ্রথম বর্ষের ছাত্রী তানজিলা আক্তার (২৩) অপহরণের ১৬ দিন পর উদ্ধার হয়েছে। শনিবার সকালে আমতলী থানা পুলিশ হেফাজতে তার ডাক্তারী পরীক্ষা করা হয়েছে ্ এবং বিকালে আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বৈজয়ন্ত বিশ্বাসের আদালতে জবানবন্দী করানো হয়েছে। বিজ্ঞ বিচারক জবানবন্ধী শেষে  তানজিলাকে তার পিতার জিম্মায় দিয়েছেন।   শুক্রবার র‌্যাব-১১ সদস্যরা নারায়গঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার রেলপাড়া গ্রামের শাহ আলম মিয়ার ভাড়াটিয়া নাজিম উদ্দিনের বাড়ী থেকে তানজিলাকে উদ্ধার করে

আমতলী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।  পুলিশ ও তানজিলার পারিবার জানায়, গত ১৯ এপ্রিল বিকেলে আমতলী উপজেলার আড়পাঙ্গাশিয়া গ্রামের নিজাম উদ্দিন বিশ্বাসের মেয়ে আমতলী সরকারী কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্রী তানজিলা ও তার ভগ্নিপতি ফোরকান মুসুল্লীসহ ৪/৫জন বেড়াতে যায় একই ইউনিয়নের ডাঙ্গারচর এলাকায়। এ সময় মধ্য আড়পাঙ্গাশিয়া গ্রাামের আঃ মজিদ তালুকদারের ছেলে মোঃ রাসেল তালুকদার (২৭)সহ ৭/৮ জন  ৪টি মোটর সাইকেল নিয়ে তানজিলাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়।এঘটনার পরে তানজিলার বাবা নিজাম উদ্দিন তার মেয়েকে ফেরৎ পেতে আঃ মজিদ তালুকদারের কাছে বহুবার ধর্না দেয়। মজিদ তালুকদার তানজিলাকে ফেরৎ দেয়ার মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে ঘুরাতে থাকে। অসহায় পিতা কোন উপায়ন্ত না পেয়ে ঘটনার ২ দিন পরে ২১ এপ্রিল আমতলী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তানজিলার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পুর্বক অপহরণ করা হয়েছে মর্মে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় মোঃ রাসেল তালুকদারকে প্রধান আসামী করে ৯ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

তানজিলার বাবা নিজাম বিশ্বাস জানান, তানজিলাকে অপহরণ করে নারায়গঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার বেলপাড়া গ্রামের শাহ আলম মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া নাজিম উদ্দিন মিয়ার ঘরে তাকে আটকে রাখা হয়। বৃহস্পতিবার রাতে প্রতিবেশীরা তানজিলার কান্না শুনে ওই ঘরে গিয়ে তানজিলার কথা শুনে র‌্যাব-১১ ক্যাম্পে খবর দিলে র‌্যাব সদস্যরা শুক্রবার ঘটনাস্থলে গিয়ে তানজিলাকে উদ্ধার করে। এসময় মোঃ রাসেল সহ তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। আমতলী থানার এস আই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোলাম মস্তফা জানান, তানজিলাকে ফতুল্লা থানা থেকে  আমতলী থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।শনিবার তানজিলার ডাক্তারী পরীক্ষা ও ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট জবানবন্ধী করানো হয়েছে।  অপর দিকে রাসেলের পরিবার দাবী করেছে অপহরন  নয় গত ৪ বছর ধরে রাসেলের সাথে তানজিলার প্রেমের কারনে  রাসেল ও তানজিলা চলে গিয়েছিল।