অর্থনৈতিক জোন হিসাবে পটুয়াখালী জেলা  দেশ বিদেশে  স্বল্প সময়ের মধ্যে পরিচিত লাভ করবে……. প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব

2

 

ডেক্স রিপোর্ট ঃ দক্ষিনাঞ্চলেন উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট বিভাগ গুলো  সমন্বয় করে কাজ করে যাচ্ছে। অর্থনৈতিক জোন হিসাবে দক্ষিনাঞ্চের পটুয়াখালী জেলা  দেশ বিদেশে স্বল্প সময়ের মধ্যে ব্যাপক পরিচিত লাভ করবে। শনিবার দুপুরে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়ায় নির্মানাধীন দেশের তৃতীয় পায়রা সমুদ্র বন্দর ও ধানখালী ইউনিয়নের মধুপাড়া মৌজায় ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের পরিদর্শন  শেষে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ একথা বলেন।

এ সময় মূখ সচিব আরো বলেন, ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে তাপ বিদুৎকে›দ্রের নির্মান কাজ শেষ করা হবে। ক্ষতিগ্রস্থ ভূমি মালিকদের ইতিমধ্যে জমির মুল্য পরিশোধ করা হয়েছে এবং তাদের পুর্নবাসনের জন্য আবাসন ব্যবস্থা গ্রহন করেছে সরকার। অন্যদিকে পায়রা সমুদ্র বন্দরের পুর্নাঙ্গ কার্যক্রম ২০২৩ সাল নাগাদ চালু হবে বলে তিনি জানান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, এনবিআর চেয়ারম্যান ও সিনিয়র সচিব নজিবুর রহমান, ভূমি সচিব মেসবাহ উল আলম, বিদ্যুৎ সচিব মনোয়ার ইসলাম, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ সচিব এমএএন সিদ্দিক, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্র্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আশোক মাধব রায়, প্রধান বন সংরক্ষক ইউনুচ আলী, সাপোর্ট টু ক্যাপাসিটি বিল্ডিং অব বেজা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক হারুন অর রশিদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক-১ নাফিউল হাসান।

প্রকল্প পরিদর্শন শেষে সচিব গন  হেলিকাপ্টার যোগে কলাপাড়া ত্যাগ করেন।