আইনী ব্যবস্থা নিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও পুলিশের গড়িমসি ¬¬¬ কলাপাড়ায় উত্তরা ব্যাংকে বিপুল পরিমান জাল নোট জব্দ

3

 

গোফরান পলাশ, কলাপাড়া প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড কার্য্যালয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে ২ লক্ষ ৭৬ হাজার ৫০০ টাকার জাল নোট জব্দ করার পর জাল নোট সরবরাহকারী সন্দেহ ভাজন এনকেবি ব্রিকস্’র ম্যানেজার কে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ কিংবা ঘটনার পরও ব্যাংকের পক্ষ থেকে কলাপাড়া থানায় এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ দায়ের না করার বিষয়টি শহরে টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে। এছাড়া বৃহস্পতিবার ব্যাংক কার্যালয়ে দিনভর পুলিশের উপস্থিতি সত্ত্বেও কলাপাড়া থানা পুলিশ এ বিষয়ে কোন আইনী পদক্ষেপ গ্রহন না করায় এনিয়ে স্থানীয়দের মুখে শোনা যাচ্ছে নানা গুঞ্জন।উত্তরা ব্যাংক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে জাপা নেতা আমজাদ হাওলাদারের মালিকানাধীন এনকেবি ব্রিকস্ এর ম্যানেজার মতি মিয়া সিলেট জেলার লাল দীঘির পাড় শাখায় জনৈক ফখরুদ্দীন আহমেদের ব্যাংক হিসাবে ২,৭৬,৫০০ টাকার টিটি পাঠানোর সময় জাল নোটের বিষয়টি প্রথমে ক্যাশিয়ারের নজরে আসে। এর পর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই জাল টাকা জব্দ করার পর ব্যাংক ম্যানেজারের সাথে কথা বলে দ্রুত সটকে পড়ে এনকেবি ব্রিকস্ ম্যানেজার। যেখানে এক হাজার টাকার ২২৬টি এবং পাঁচ শ’ টাকার ১০১টি নোট রয়েছে। স্থানীয়দের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে এস আই জাফর ও এএসআই বিল্লালের নেতৃত্বে কলাপাড়া থানা পুলিশ ব্যাংক কার্যালয়ে অবস্থান নেয় সন্ধ্যা অবধি। অত:পর ব্যাংক ম্যানেজার, ইটভাটা মালিক পক্ষের প্রতিনিধি ও পুলিশের সাথে চলে দফায় দফায় অলোচনা। ব্যাংক থেকে বেরিয়ে গনমাধ্যম কর্মীদের পুলিশ জানায় এটি ব্যাংকের অভ্যন্তরীন বিষয়। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ কোন অভিযোগ না দিলে তাদের কিছুই করার নেই। অথচ- ব্যাংকে সংঘটিত অপরাধটিতে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ (ক) এর যথেষ্ট উপাদান ছিল, যে অপরাধে যাবজ্জীবন কারা দন্ড, ১৪ বছর পর্যন্ত সশ্রম কারা দন্ড, তদুপরি অর্থদন্ডের বিধান রয়েছে।এদিকে উত্তরা ব্যাংক লি: কলাপাড়া শাখার ম্যানেজার খুলনা জেলার খালিশপুর এলাকার বাসিন্দা জামাত-শিবির সমর্থক মো: সাদিত হোসেন সাদা কাপড়ে মুড়িয়ে ওই জাল নোট গুলো সিল গালা করে ব্যাংকে রেখে দেন। এরপর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে জাল নোট পরীক্ষা পূর্বক আইনী পদক্ষেপ গ্রহনের কথা বলেন। অপরদিকে ব্যাংকের সিসি ফুটেজ ও জাল টাকার নোট বান্ডিল থেকে সরিয়ে ফেলে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। এ বিষয়ে এনকেবি ব্রিকস্ এর সত্ত্বাথিকারী ও জাপা (এ) কলাপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি মো: আমজাদ হাওলাদার বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে ডেসটিনি লি: এর মামুন তার ম্যানেজারকে ওই টাকা গুলো ইট বিক্রী বাবদ পেমেন্ট করে, যা ম্যানেজারের মাধ্যমে ইটভাটার মালামাল ক্রয়ের জন্য সিলেটে টিটি হরা হচ্ছিল বলে জানান।কলাপাড়া থানার অফিসার ইন-চার্জ জি.এম. শাহনেওয়াজ উত্তরা ব্যাংকে জাল টাকা জব্দের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এটি ব্যাংকের অভ্যন্তরীন বিষয়। অদ্যবধি ব্যাংকের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোন অভিযোগ দেয়া হয়নি। উত্তরা ব্যাংক লি: কলাপাড়া শাখার মানেজার মো: সাদিত হোসেন এর সাথে গতকাল (শুক্রবার) সকালে মুঠো ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি বরিশাল কনফারেন্সে রয়েছেন বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়ায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।প্রসংগত: গত মঙ্গলবার রাতে পটুয়াখালী সদর উপজেলার লোহালিয়া গ্রামের জনৈক হুমায়ুন কবির (৪২), মো: অলি (২৮) ও তার স্ত্রী তিথি আক্তার (২০) কেরানীগঞ্জের আটগ্রাম এলাকার একটি ভাড়া বাড়ীর ৩য় তলা থেকে বিপুল পরিমান ১ হাজার ও ৫ ’শত টাকার জাল নোট সহ র‌্যাবের হাতে আটকের পর কলাপাড়ায় ব্যাংক কার্যালয়ে বিপুল পরিমান জাল নোট জব্দ হওয়ার পরও রহস্যজনক কারনে কোন আইনী পদক্ষেপ গ্রহীত না হওয়ায় এটি শহরে টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে।