আজ শুভ মহালয়া

8

ডেস্ক রির্পোট ঃ আজ শুভ মহালয়া পিতৃপক্ষের শেষে দেবীপক্ষের শুরু আজ। চন্ডী পাঠের মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার আবাহনই সনাতন সমাজে মহালয়া হিসেবে পরিচিত। আর এই চন্ডীতেই রয়েছে সৃষ্টি হয়েছে দেবী দুর্গার আখ্যান।

 

বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ মহালয়া। আজ সোমবার ভোরে চন্ডীপাঠের মধ্য দিয়ে আবাহন হয়েছে দেবী দুর্গার। দেবীকে আমন্ত্রণ জানানো হবে মর্ত্যলোকে। আগামী ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হলেও মূলত মহালয়ার দিন থেকেই সনাতন হিন্দুধমের দুর্গাপূজার আগমনী ধ্বনি শোনা যায় মন্দিরে মন্দিরে।

 

শাস্ত্রীয় বিধান মতে, মহালয়ার অর্থ হচ্ছে মহান আলোয় দুর্গতিনাশিনী দেবী দুর্গাকে আবাহন। দুর্গাপূজার দুটি পক্ষের (১৫দিনে একপক্ষ) রয়েছে, একটি হলো পিতৃপক্ষ, অন্যটি দেবীপক্ষ। অমাবস্যা তিথিতে পিতৃপক্ষের শেষ হয়, আর পরের দিন প্রতিপদ তিথিতে শুরু হয় দেবীপক্ষের।

 

পুরাণ মতে, রাজা সুরথ প্রথম দেবী দুর্গার আরাধনা শুরু করেন। বসন্তে তিনি এই পূজার আয়োজন করায় দেবীর এ পূজাকে বাসন্তী পূজাও বলা হয়। কিন্তু রাবণের হাত থেকে সীতাকে উদ্ধার করতে যাওয়ার আগে শ্রী রামচন্দ্র শরৎকালে দেবী দুর্গার পূজা করেছিলেন। অকালে তথা শরৎকালে অনুষ্ঠিত হওয়া এই পূজা তখন থেকেই অকালবোধন নামে পরিচিত।#