আমতলীতে   ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের  ভোট উৎসব

3

আমতলীপ্রতিনিধিঃ ৩১ মার্চ ওদের  শ্রেনী কক্ষে পাঠদান নেই। তবে সকল সহপাঠি মিলে বিদ্যালয়ে সমবেত। সকাল থেকে স্কুল ও আশপাশ জুড়ে নির্বাচনী আমেজে অন্য এক উৎসবের মুখরতা। সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয় আঙ্গীনা জুড়ে সুশৃঙ্খল ভাবে দাড়িয়েছে। যে শ্রেনী কক্ষে প্রতিদিন পাঠদান চলে সেই শ্রেনী কক্ষে এখন ভোটের বাক্স, ব্যালট পেপার। আছে নির্বাচন কমিশন। প্রিজাইডিং অফিসার শিক্ষার্থী ভোটারদের তালিকা ধরে ধরে ব্যালট   পেপার এগিয়ে দিচ্ছেন। গোপন কক্ষে ক্ষুধে ভোটাররা পছন্দের প্রার্থীদের সীল মেরে আবার তা ভোট বাক্সে জমা করছে। শিক্ষার্থীদের অন্য রকম এক ভোট উৎসবের দিন।

সারাদেশের মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে। বরগুনার আমতলী উপজেলা সদরের  মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

দেখা  গেছে,সকাল নয়টায় ভোট গ্রহন শুরুর আগেই উৎসুক শিক্ষার্থী  ভোটাররা নিজ বিদ্যালয় মাঠে সুশৃঙ্খল ভাবে লাইনে দাড়িয়েছে।  ভোটাররা একে একে  ভোট  কেন্দ্রে ঢুকে  ভোট প্রদান করছে। ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের ভোট উৎসব  দেখতে  বড়রা ও ভোট কেন্দ্রের বাইরে সমবেত হয়। ভোট কেন্দ্রে আশপাশ জুড়ে চায়ের ও খাবারের দোকান বসায়। পুরো ভোট কেন্দ্র জুড়ে উৎসব মূখর পরিবেশ বিরাজ করে। প্রার্থীদের হাতে লেখা পোষ্টার সাজানো হয়েছে ভোট কেন্দ্রের আশপাশ জুড়ে।

ক্ষুদে ভোটারদের ভোট দেখতে আসা  ইব্রাহিম বলেন, এতো সুন্দর ভোট অনুষ্ঠান দেখে খুব ভালো লাগছে। আমাদের বড় ভোটারদের এ থেকে মনে হচ্ছে অনেক কিছু শেখার আছে।

বিদ্যালয় সূত্রে জানাগেছে, ৭টি পদে ১৩ জন্য প্রার্থী এই কেবিনেট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধীতা করছে। হাতে লেখা পোষ্টার ও ক্ষুদে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারণাও  ছিলো। এসব প্রচারণায় বড়রাও সহযোগী হিসেবে সহযোগীতা করেছে। ভোট কেন্দ্রের দ্বায়িত্বরত প্রধান নির্বাচন কমিশনার দশম শেণীর ছাত্রী কারমিা আক্তার   অনন্যা বলে, এ নির্বাচনে বিদ্যালয়ের ৮০৮ জন ক্ষুদে ভোটার ভোট প্রদান করছে। নির্বাচনকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের মাঝে আনন্দ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এ নির্বাচনে ৭ জন কেবিনেট সদস্য নির্বাচিত হবেন। পরে এদের মধ্য থেকে একজনকে প্রধান প্রতিনিধি নির্বাচন করা হবে। কেবিনেট সদস্যদের বিদ্যালয়ের সাতটি উন্নয়ন দপ্তরের দ্বায়িত্ব বন্টন করা হবে। দপ্তর গুলি হল,পরিবেশ,স্বাস্থ্য, শিক্ষা,পাঠাগার,পানি,বন ও বাগান এবং ক্রিড়া ও সাংস্কৃতি।

এ ব্যাপারে কেবিনেট সদস্য প্রার্থী ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী সাবরিনা আক্তার সেজুতি   বলে,শিক্ষার্থীদের ভোটে নির্বাচিত হতে পারলে বিধ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ উন্নয়নে কাজ করবো।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহ আলম কবির জানান, স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন সরকারের একটি জনগুরুত্বপূর্ন উদ্যোগ। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা শিক্ষা জীবন  থেকে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক ধারার চর্চায় সচেষ্ট হবে। এছাড়া এ নির্বাচন শিক্ষার্থীদের নেতৃত্বদানের গুনাবলী তৈরীতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। আমতলী উপজেলা  মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা  মো.গোলাম মস্তফা জানান, স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন স্কুল জীবন  থেকে শিক্ষার্থীদের নির্বাচন সর্ম্পকে জ্ঞান লাভ সহ সুষ্ঠ ধারার রাজনীতি চর্চার বিকাশ ঘটাবে। আমতলী উপজেলার ২৪টি  মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ২৯ দাখিল মাদ্রাসায় বৃহস্পতিবার স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।