আমতলীতে জমি থাকা সত্ত্বেও ভিক্ষা করে জীবন নির্বাহ করতে বাধ্য হচ্ছে একটি পরিবার

0

3llআমতলী প্রতিনিধি ঃ বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী সমাজ সেবা দিবসের আলোচনা সভায় ভিক্ষা বৃত্তি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন । ঠিক এসময়ই আমতলী উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের পূর্বচুনাখালী গ্রামে জমি দখল করে ভোগ দখল করায় বাধ্য হয়ে অ-সহায় একটি পরিবার ভিক্ষা করে জীবন নির্বাহ করছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনার আমতলী উপজেলা কুকুয়া ইউনিয়নের পূর্ব -চুনাখালী গ্রামের এক অসহায় বিধবা নারী ও তার পুত্র কন্যাদের   জমি দখল করে ভোগ দখল করার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা জানান, চুনাখালী গ্রামের মৃত আলাম হাওলাদারের স্ত্রী মহুজা বেগম(৯১). মানসিক ভারসাম্যহিন পুত্র আঃ খালেক,কন্যা সালেহা ও জয়নবের ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া ৯২.৩৮ একর জমি একই এলাকার দখলবাজ ,ভূমিদস্যু ,প্রভাবশালী আপ্তের আলী তার পুত্র দেলোয়ার হোসেন , আনোয়ার হোসেন   অন্যায় ভাবে বহু বছর ধরে ভোগ দখল করে আসছেন। এ ঘটনায় একাধিক বার সালিশ বৈঠক হলেও আপ্তের আলী গংরা কোন শালিশ বৈঠক মানেনা।

জমির প্রকৃত মালিক মহুজা বেগম(৯১)মানসিক ভারসাম্যহীন আঃখালেক বর্তমানে ভিক্ষা করে জীবন নির্বাহ করছেন। কুকুয়া ইউপি সদস্য ও এ ঘটনার শালিস মো. আব্দুস সোবহান বলেন জমির প্রকৃত মালিক মহুজা ও তার পুত্র কন্যারা ।

এব্যাপারে আপ্তের আলীর পুত্র মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন আমাদের বিরুদ্দে অভিযোগ সঠিক নয়।আমরা জমি ক্রয় করেছি। সোমবার সকালে মহুজা বেগম হাতে লাটি ও ছোট একটি ব্যাগ নিয়ে ভিক্ষা করতে যাওয়ার সময় বলেন । আমার জমি আপ্তের ও ওর পোলারা খায় আমি ও আমার পোলা খালেক ভিক্ষা কইর‌্যা মানষের দুয়ারে দুয়ারে ঘুইর‌্যা যেইয়া পাই হেইয়া দিয়া কোন রহম দুগ্যা খাইয়া বাইচ্যা আছি। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মহুজা তার পুত্র কন্যরা প্রশাসনের উচ্চমহলের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।