আল-হারামে ক্রেন দুর্ঘটনায় প্রাণহানি বেড়ে ১০৭

0

পটুয়াখালী প্রতিদিন ডেস্ক:
মক্কার পবিত্র মসজিদ আল-হারামের সম্প্রসারণ কাজের একটি ক্রেন ভেঙে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের প্রায় সবাই পবিত্র হজ পালনের জন্য গিয়েছিলেন। এ ঘটনায়  ৪০ বাংলাদেশিসহ আহতের সংখ্যাও বেড়ে ২৩০ জন ছাড়িয়েছে। আহত বাংলাদেশিরা আশঙ্কামুক্ত বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। তাদের অধিকাংশই প্রাথমিক চিকিত্সা নিয়ে নিজ নিজ আবাসস্থলে ফিরে গেছেন। সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ গণমাধ্যমকে জানান, নিহতদের মধ্যে কোনো বাংলাদেশি নেই। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ শুক্রবারের এ দুর্ঘটনায় হতাহত ব্যক্তিদের নাগরিকত্ব ও ক্ষয়ক্ষতির আনুষ্ঠানিক তথ্য এখন পর্যন্ত জানায়নি। ডেইলি মেইল জানায়, নিহতদের মধ্যে ভারতের ৯ জন, পাকিস্তানের ১৬ জন ও ইরানের ১৫ জন নাগরিক রয়েছেন। ইতোমধ্যেই দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। বিবিসি।

সৌদি সিভিল ডিফেন্সের প্রধান সুলাইমান আল-আমর আল-ইখবারিয়া টেলিভিশনকে বলেছেন, দুর্ঘটনাস্থল পরিষ্কার করে ফেলা হয়েছে। সেখানকার অবস্থা এখন পুরোপুরি স্বাভাবিক।
মসজিদ আল-হারামের সংস্কার কাজ চলার মধ্যে পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরুর ক’দিন আগে সংঘটিত এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা তদন্তে মক্কার গভর্নর খালেদ আল-ফয়সাল দুটি কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে সৌদি গেজেট।

সৌদি রেড ক্রিসেন্টের হজ ও ওমরা বিষয় বিভাগের প্রধান খালেদ আল-হাবশি জানিয়েছেন, দুর্ঘটনাস্থল থেকে আহতদের হাসপাতালে নিতে ৬৮টি উদ্ধারকারী দল কাজ করেছে। যারা অল্প আহত হয়েছেন দুর্ঘটনাস্থলেই তাদের চিকিত্সা দেওয়া হয়। ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, ‘মাগরিবের আগে প্রচণ্ড বালুঝড় হয়। এ সময় ক্রেনটি ভেঙে পড়ে। আমাদের চোখের সামনে বহু মানুষকে আহত-নিহত হতে দেখেছি।’

প্রতি বছর ৩০ থেকে ৪০ লাখ মুসলমান পবিত্র হজ পালন করতে এখানে সমবেত হন। এবার প্রায় এক লাখ বাংলাদেশির মধ্যে অর্ধেক ইতোমধ্যে সৌদিতে পৌঁছে গেছেন।
টুইটারে ছড়িয়ে পড়া কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, হজের ইহরাম পরিহিত রক্তাক্ত বহু মানুষের দেহ কংক্রিটের স্তূপের মধ্যে পড়ে আছে। ছাদ ভেঙে নেমে আসা লাল রংয়ের একটি বিশাল ক্রেনের অংশবিশেষও এসব ছবিতে দেখা যাচ্ছে।

একসঙ্গে ২২ লাখ হজযাত্রীর স্থান সঙ্কুলানের জন্য গত বছর মসজিদের এলাকা ৪ লাখ বর্গমিটার সম্প্রসারণের কাজ শুরু করে সৌদি সরকার। এই নির্মাণকাজের জন্য বেশ কয়েকটি ভারি ক্রেনও  ব্যবহার করা হচ্ছে। ১৪ বিলিয়ন পাউন্ড ব্যয়ে এই নির্মাণকাজ চলছে। নির্মাণকাজ শেষ হলে আল-হারামের মোট জায়গার পরিমাণ হবে ৪৩ লাখ বর্গফুট।

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে একটি ক্রেন মসজিদের পূর্ব অংশের আল-সালাম গেটের সামনে চতুর্থ তলার ওপর আছড়ে পড়ে। হজে আসা মানুষ মাগরিবের নামাজের আগে জড়ো হওয়ায় সে সময় ওই অংশটি ছিল হাজার হাজার মুসল্লিতে পরিপূর্ণ। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লাখ লাখ মুসলিম হজব্রত পালনের জন্য ইতোমধ্যে মক্কা নগরীতে পৌঁছেছেন। আগামী ২১ সেপ্টেম্বর হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে।