এসি ল্যান্ড ছাড়াই চলছে গলাচিপা ভূমি অফিস

37

নাসির উদ্দিন, গলাচিপা বিশেষ প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা ভূমি অফিস চলছে এসি ল্যান্ড বিহীন।বর্তমানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসি ল্যান্ডের চলতি দায়িত্ব পালন করলেও এসি ল্যান্ড না থাকায় উপজেলা ভূমি অফিসের দাফতরিক কাজে বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে। এ ছাড়া ভূমি অফিসের প্রকৃত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকার সাধারণ জনগন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) বদলী জনিত কারণে ১০মাস অতিক্রম করার পরও এ উপজেলায় এসি ল্যান্ড নিয়োগ দেয়া হয়নি। ফলে শত শত ভূমি সংক্রান্ত মামলা,মিটিউসন, ভূমি খারিজ, ভূমি উন্নয়ন কর আদায়, তহসিল অফিস পরিদর্শন, ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজে জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে। গলাচিপা উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাজী সায়েমুজ্জামান ২০১৪ সালের  ৬ ফেরুয়ারী যোগদান করেন। তিনি গলাচিপা উপজেলায় থাকাকালিন সময় ভূমি অফিস দালাল মুক্ত হয়েছিল বলে অনেকে দাবী করেন।তিনি ঘোষনা দিয়েছিল অফিস হবে দালাল মুক্ত।  দালালদের ধরিয়ে দিতে পারলে নগদ  ৫ হাজার টাকা পুরস্কৃত করা হবে ।জানা গেছে, ২০১৫সালে ১৬ মার্চ গলাচিপা উপজেলা সাবেক সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাজী সায়েমুজ্জামান কৃষি খাস জমি ভূমিহীনদের মাঝে বিতরণের জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করেন। একই বছর ১৫ এপ্রিল থেকে ৩০ এপ্রিল এর মধ্যে কৃষি খাসজমি বন্দোবস্ত দেওয়ার আবেদন গ্রহনের তারিখ নির্ধারন করেন। এর মধ্যে গলাচিপা উপজেলার ইউনিয়নগুলোর মধ্যে চরবিশ্বাসে ১৮৩৪ জন, চরকাজলে ১৫৪৮ জন, সদর ইউনিয়নে ৮৩৫ জন, গোলখালী ৬৯০ জন, ডাকুয়া ৩৫০ জন, রতনদী তালতলী ৩৫০ জন, আমখোলা ২৬৭জন এবং গজালিয়া ২১১জন ভূমিহীনরা আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নেতৃত্বে খাসজমি বন্দোবস্ত কমিটির সদস্যগণ ২০১৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর এর মধ্যে চরবিশ্বাস ইউনিয়ন বাদে ৭টি ইউনিয়নে মাঠ পর্যায় যাচাই বাছাই শেষ হয়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাজী  সায়েমুজ্জামান নয় মাস পূর্বে বদলী হন। তখন থেকে ভূমিহীনদের কাগজ পত্রের ফাইল আজও বন্ধি হয়ে রয়েছে।জানা গেছে, প্রায় ১০ বছর ধরে গলাচিপায কোন ভূমিহীনদের মাঝে ভূমি বন্দোবস্ত দেয়া হয়নি। উল্লেখ্য যে, সহকারী কমিশনার(ভুমি)পদ শূণ্য থাকায় এ উপজেলায় শত শত ভূমি সংক্রান্ত মামলা, মিটিউশন, ভূমি খারিজ, ভূমি উন্নয়ন কর আদায়, তহসিল অফিস পরিদর্শন ও ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজে মারাত্মক ব্যঘাত ঘটছে।এতে সাধারণ মানুষ যেমন ক্ষতি গ্রস্ত হচ্ছেন তেমনি সরকারের সম্পত্তি বেদখল হয়ে যাচ্ছে। সাউথ এশিয়া পার্টনাশীপ (স্যাপ) এর সহযোগিতায় গলাচিপা নাগরিক কমিটির উদ্যোগে ভূমিহীনদের মাঝে ভূমি বন্দোবস্ত দেয়ার জন্য গলাচিপা ইউএন ও এর কাছে স্মারক লিপি দেয়া হয়েছে। উপজেলা ভূমি অফিসে দ্রুত সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিয়োগের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী । এ ব্যাপারে চলতি দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল বাকী জানান, গলাচিপা একটি বড় উপজেলা ।এ বিষয়ে নিয়ে এমপি মহোদয় ও জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলেছি তারা শিঘ্রই এ পদটি পূরণের ব্যবস্থা করবেন।