এ কেমন নিষ্ঠুরতা!

3

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল : পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের তাঁতেরকাঠী গ্রামে গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে স্থানীয় কয়েকজন যুবক আনোয়ার নামে এক ব্যাক্তিকে চুরির অভিযোগে রাতভর অমানবিক নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতনের খবর শুনে আনোয়ারের বৌ ও একমাত্র মেয়ে করজোরে ক্ষমা চাইলেও নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পায়নি আনোয়ার । এক পর্যায়ে মেয়ে তানিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে চিৎকার করে বলেন ‘আমার আব্বারে ছাইড়া দেন। আমার আব্বায় চুরি করে নাই, হ্যারে আর মাইর্রেন না’ হে চোর না। মেয়ে তানিয়ার অত্মচিৎকার কানে যায়নি নির্যাতন কারীদের, বন্ধ হয়নি নির্যাতন।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের তাঁতেরকাঠি গ্রামের মো. আনোয়ার বুধবার গভীর রাতে একই গ্রামের খোকন মৃধার ঘরের সামনের দরজা খুলে ভিতরে ঢোকে। এক পর্যায়ে আনোয়ারকে ঘরের লোকজন ধরে ফেলে চোর চোর বলে চিৎকার দেয়। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে আনোয়ারকে আটক করে দড়ি দিয়ে গাঁছের সাথে বেঁধে রাখে। এরপর আনোয়ারের উপর চলে রাতভর অমানবিক নির্যাতন। নির্যাতনের খবর পেয়ে সকালে আনোয়ারের স্ত্রী বিউটি বেগম ও তার মেয়ে তানিয়া ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সবাইকে আনোয়ারকে আর না মেরে প্রয়োজনে পুলিশে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু আনোয়ারের স্ত্রী সন্তানের কান্নায় কেউ পাত্তা না দিয়ে সমানে চালায় নির্যাতন। নির্যাতন শেষে ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার মোহনকে দিয়ে আনোয়ারকে বাউফল থানায় পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে বাউফল থানার ওসি আ জা ম মাসুদুজ্জামান জানায়, আনোয়ারকে চুরির মামলায় আদালতে প্রেরন করার প্রক্রিয়া চলছে।