কলাপাড়ায় অগ্নিদগ্ধ কিশোরের মৃত্যু

0

গোফরান পলাশ, কলাপাড়া প্রতিনিধি: কুয়াকাটার আলীপুরে অগ্নিদগ্ধ কিশোর বশার ফকির (১৬) অবশেষে মারা গেছে। বরিশাল শে.বা.চি.ম হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে নেয়ার পথে সোমবার রাতেই তার মৃত্যু হয় বলে মহিপুর থানা পুলিশ জানিয়েছে।

এদিকে কুয়াকাটা হাসপাতালে রোগীকে বিলম্বে চিকিৎসা দেবার অভিযোগে অগ্নিদগ্ধ রোগীর পিতা জাকির মুন্সী চিকিৎসক কামরুজ্জামানকে শারিরিকভাবে লাঞ্চিত করার অভিযোগে চিকিৎসক কামরুজ্জামান মহিপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।মহিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মাকসুদুর রহমান জানান, অগ্নি দগ্ধ কিশোর বশার ফকিরের মরদেহ দাফন করা হয়েছে। অপরদিকে চিকিৎসককে লাঞ্চিত করার অভিযোগটি তদন্ত করে শীঘ্র্রই আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।প্রসংগত, আলীপুর মৎস্যবন্দরে খাবার হোটেলের বার্নার (ডিজেল চালিত) চুলা বিস্ফোরনে বশার ফকির অগ্নিদগ্ধ হয়। সোমবার বিকেল তিনটায় জাকির মুন্সীর দোকানে পিয়াজু ভাঁজতে গিয়ে বার্নার চুলা বিস্ফোরনে ওই হোটেল কর্মচারী অগ্নিদগ্ধ হয়। ঘটনার পর তাৎক্ষনিক তাকে উদ্ধার করে কুয়াকাটা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসককে যথা সময়ে পাওয়া যায়নি। পরে রোগীর অবস্থার অবনতি হলে তাকে বরিশাল শে.বা.চি.ম হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। আহত বশার ফকির নয়াপাড়া গ্রামের জাকির মুন্সীর ছেলে। মঙ্গলবার তার মৃত দেহ নামাজে জানাজা শেষে তার গ্রামের বাড়ীতে দাফন করা হয়।