কলাপাড়ায় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা

1

বিশেষ প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মো: ফিরোজ সিকদারসহ তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কলাপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক মো: নুরুল ইসলাম বাদল বাদী হয়ে গত রবিবার রাতে এ মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রধান আসামী মো: মুছা প্যাদাকে পুলিশ ইতোমধ্যে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে।

 

এদিকে কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক মো: আনিছুর রহমান গতকাল (মঙ্গলবার) আসামী পক্ষের আইনজীবির জামিন আবেদনের শুনানী শেষে সন্তুষ্ট হয়ে মামলার প্রধান আসামী মো: মুছা প্যাদার জামিন আবেদন না মঞ্জুর করেন।

 

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কলাপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক মো: নুরুল ইসলাম বাদলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গত রবিবার রাতে পৌরশহরের ২নং ওয়ার্ড থেকে মো: মুছা প্যাদাকে ৫পিচ ইয়াবা সহ গ্রেফতার করে। অত:পর মুছার স্বীকারোক্তিতে পৌর শহরের ৮নং ওয়ার্ডের মৃত মো: হালিম সিকদারের পুত্র  উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মো: ফিরোজ সিকদার এবং ৩নং ওয়ার্ডের আবদুর রশিদ মাষ্টারের পুত্র মো: সাইদুর রহমানের নাম প্রকাশ পেলে পুলিশ মুছা সহ তিন জনের নামে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করে, মামলা নং-২৩, তারিখ-২৪-০১-১৬।

 

উল্লেখ্য, র‌্যাব-৮ পটুয়াখালী সদস্যরা ইতিপূর্বে শ্রমিকলীগ নেতা মো: তারেকুজ্জামান তারেককে পৌরশহরের ১নং ওয়ার্ড থেকে ৫০ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত তারেক বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন।