কলাপাড়ায় প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টারের দালালদের দৌরাত্ম্যে হয়রানীর শিকার হচ্ছে সাধারন মানুষ

1

গোফরান পলাশ, কলাপাড়া প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টারের দালালদের দৌরাত্ম্যে হয়রানীর শিকার হচ্ছে সাধারন মানুষ। ভুক্তভোগী এসকল মানুষ সরকারী হাসপাতাল থেকে যথাযথ চিকিৎসা সেবা না পেয়ে দালালদের খপ্পড়ে পড়ে আর্থিক হয়রানীর শিকার হলেও অদ্যবধি প্রতিকার পায়নি কেউ। এমনকি প্রভাবশালী প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টার মালিকদের  পোষা দালালদের হাতে অসুস্থ্য রোগী ও তার স্বজনদেরকে শারিরীক ভাবে লাঞ্চিত করারও অভিযোগ রয়েছে।

জানা যায়, কলাপাড়া পৌর শহর, মৎস্যবন্দর মহিপুর ও কুয়াকাটায় প্রায় এক ডজন ডায়গনষ্টিক সেন্টার ও প্রাইভেট ক্লিনিক রয়েছে। এসকল প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টারের কোনটিরই যথাযথ কাগজ পত্র না থাকার পরও রহস্যজনক ভাবে এগুলো চালু রয়েছে। এসব ডায়গনষ্টিক সেন্টারে কর্মরত নার্স, ব্রাদার, টেকনিশিয়ান ও ল্যাব সহকারীদের মধ্যে অনেকেরই যথাযথ প্রশিক্ষন সনদ নেই। এসকল ডায়গনষ্টিক সেন্টার ও প্রাইভেট ক্লিনিক গুলোর দালালরা অফিস টাইমে হাসপাতালের ভিতরে ও গেটে অনস্থান নিয়ে রোগী বাগিয়ে নেয়ার বিষয়ে তৎপর থাকে সর্বদা। এমনকি মাঝে মাঝে রোগী নিয়ে টানা হেঁচড়া সহ দালালে দালালে হাতা-হাতি ও চুলো-চুলির ঘটনাও ঘটছে হাসপাতাল প্রশাসনের সামনে। কলাপাড়া হাসপাতালের খোদ চিকিৎসক ও ষ্টাফদের মধ্যে কেউ কেউ এসকল ডায়গনষ্টিক সেন্টারের ব্যবসার সাথে জড়িত থাকায় অফিস টাইমেও তারা প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টারে বসে প্রাইভেট প্রাকটিস করছেন। সম্প্রতি কলাপাড়া নাগরিক সংগ্রাম কমিটি কলাপাড়ায় কর্মরত চিকিৎসকদের অনিয়ম-দুর্নীতি রোধ সহ সাধারন মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতকরনে হাসপাতাল  ঘেরাও কর্মসূচী ঘোষনা করায় নড়েচড়ে বসে স্বাস্থ্য বিভাগ। এছাড়া ভ্রাম্যমান আদালত ইতোপূর্বে এসকল ডায়গনষ্টিক সেন্টার থেকে একজন ভুয়া এমবিবিএস চিকিৎসককে আটক করে কারাদন্ড প্রদান ও একটি প্রাইভেট ক্লিনিক সিল করে দেয়ার সময় অন্যরা তালা ঝুলিয়ে সটকে পড়ে। পরবর্তীতে স্বাস্থ্য প্রশাসনকে ম্যানেজ করে পুন:রায় চলছে এ লাভ জনক ব্যবসা। এসকল ডায়গনষ্টিক সেন্টার ও প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে অবৈধ গর্ভপাত করার ও অভিযোগ রয়েছে। কলাপাড়া হাইস্কুল মাঠে সম্প্রতি অবৈধ গর্ভপাতের ফসল একটি নবজাতকের লাশ নিয়ে কুকুরে টানাটানির পর তৎপর হয়ে ওঠে পুলিশ প্রশাসন। কিন্তু তারপরও  থেমে নেই প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টার দালালদের দৌরাত্ম্য।

এ বিষয়ে কলাপাড়া নাগরিক সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক হাবিবুল্লাহ রানা জানান, ’কলাপাড়া হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকদের প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টার কানেকশন রোধ এবং হাসপাতাল থেকে রোগীদের যাবতীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা সহ চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতকরনের লক্ষ্যে হাসপাতাল ঘেরাও কর্মসূচী ঘোষনার পর কর্মসূচী প্রত্যাহারে আমাকে জীবন নাশ সহ মামলা দায়েরের হুমকী প্রদান করা হয়েছে।’

কলাপাড়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মান্নান এর কাছে হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকদের প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়গনষ্টিক সেন্টার কানেকশন সহ অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিকারে তার  কোন পদক্ষেপ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ’আমি এ হাসপাতালে যোগদান করে পুরনো সবকিছু পরিবর্তন করেছি এবং দৃশ্যমান সকল উন্নয়ন করেছি।