কলাপাড়ায় যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

0

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে  বোনের বাড়ীতে আটকে রেখে গনধর্ষন করা হয় এক তরুনীকে। উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নে ঘটনাটি ঘটেছে ।

ধর্ষিতার অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের হায়দার মুন্সীর কন্যা(১৭)র সাথে মোবইলে পরিচয়ের সূত্র ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই ইউনিয়নের রহিম হাওলাদারের পুত্র শাহিন হাওলাদারের। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শাহিন তিন দিন ধরে পার্শ্ববর্তী গ্রামে তার বোনের বাড়িতে রেখে তাকে ধর্ষণ করে। সোমবার (২৮ মার্চ) রাত ৮ টায় বিয়ের কথা থাকলেও লতাচাপলী ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা বড় ভাই রফিক বিয়ে ভেঙ্গে দেয়ার জন্য তৎপরতা চালায়। কৌশলে ছোটভাই শাহিনের মাধ্যমে কাউয়ার চর ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে অপরিচিত তিন যুবকের হাতে তুলে দেয়া হয় ওই যুবতীকে। সেখানে তিন যুবক পালাক্রমে তাকে ধর্ষন করে । রাত ২টায় ধর্ষীতার ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহআলম বিশ্বাস তাকে উদ্ধার করে চৌকিদারের মাধ্যমে কুয়াকাটা নৌ-পুলিশ ফাড়িঁতে পাঠিয়ে দেয়।

কুয়াকাটা নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সঞ্জয় মন্ডল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এ ব্যাপারে কলাপাড়া থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।