কলাপাড়া এম বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজ সরকারি করনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

5

 

স্টাফ রিপোর্টার ঃ ১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠিত কলাপাড়ার মোজাহাউদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজ প্রথম স্বীকৃতি দানের ব্যবস্থা করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন প্রক্রিয়ার ধারাবাহিকতায় কলেজ প্রতিষ্ঠার ৪৫ বছর পর সেই কলেজকে সরকারি করণের লক্ষ্যে তালিকাভূক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই  প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞতা ও তাঁর দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন কলেজ অধ্যক্ষ দেলওয়ার হোসেনসহ কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী, পরিচালনা পরিষদ, ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকবৃন্দ এবং কলাপাড়াবাসী।

কলেজ অধ্যক্ষ  মো. দেলওয়ার হোসেন জানান, ১৯৭০ সালের মহাপ্লাবন ও ঘূর্ণিঝড়ের কারনে উপকূলীয় হাজার হাজার মানুষের প্রানহানী ঘটে। ওই সময়ে দূর্দশাগ্রস্থ মানুষের পাশে দাড়াতে কলাপাড়ায় আসেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি যশোর বোর্ডের চেয়ারম্যান মহোদয়কে কলাপাড়া থেকে টেলিফোনে যোগাযোগ করে মোজাহারউদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজটিকে প্রথম স্বীকৃতি দানের ব্যবস্থা করেন। তাঁর কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কলাপাড়ায় একের পর এক উন্নয়ন প্রকল্পের উন্নয়ন ও উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। সেই উন্নয়ন কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে এ কলেজটিকে সরকারি করনের উদ্যোগ নেন। এ জন্য তাঁরা তার কাছে কৃতজ্ঞ। একইভাবে তিনি কলেজ সরকারি করনের কাজে অক্লান্ত পরিশ্রম এবং সহযোগীতার  জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মাহাবুবুর রহমান এর প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এদিকে গত রবিবার মোজাহারউদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজ সরকারি হচ্ছে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে গোটা এলাকায় মানুষের মধ্যে উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। কলেজের সাবেক ও বর্তমান ছাত্ররাও এ উৎসবে নিজেকে মেলে ধরেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে আন্তরিক ধন্যবাদ এবং তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।