কলাপাড়া পৌরশহরের একমাত্র খালটি প্রভাবশালীদের দখলে

1

বিশেষ প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌরশহরের মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া একমাত্র খালটি এখন প্রভাবশালীদের দখলের কারনে হারিয়ে যেতে বসেছে। খালটি রয়েছে শুধু নামেই। খালটির দুই দিক দখল করে বসতবাড়ি সহ তোলা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের স্থাপনা। খালটি রক্ষায় পৌরসভা কর্তৃপক্ষ দুই দফা নাম মাত্র খনন করে কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন। কিন্তু খালটির সীমানা চিহ্নিত না করে এ খনন কাজ করায় খালটি এখন অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়েছে। অথচ গোটা পৌরশহরের প্রাণ এ খালটি। পৌর এলাকার পানি অপসারনসহ সকল বর্জ্য এ খাল দিয়ে অপসারিত হয়ে আসছে। খালটি বেদখল কিংবা ভরাট হয়ে পানি চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। ফলে বড় ধরনের বিপর্যয়ের কবলে পতিত হবে পৌরবাসী। অন্তত: দশ কিলোমিটার দীর্ঘ এ খালটির কয়েকটি শাখা প্রশাখা রয়েছে। এসব এখন এক শ্রেণির দখলদারদের টার্গেটে পরিণত হয়েছে। খালটি দিয়ে জোয়ার-ভাটার পানি অপসারনে এক প্রান্তের স্লুইসটি এখনও সচল রয়েছে। অপরদিকে নাচনাপাড়া চৌরাস্তা এলাকার এক ভেন্টের স্লুইসটি দখল করে মাটি ভরাট করে বহু আগেই অচল করে রাখা হয়েছে। এটি সচল করতে পাউবো কিংবা পৌরসভা কেউ উদ্যোগ নেয়নি। ফলে ক্রমশ সরু হয়ে আসছে রহমতপুর এলাকার খালটির শেষপ্রান্ত। একই দশা চিঙ্গরিয়া এলাকায় কবি নজরুল ইসলাম সড়ক এলাকার। ওই খালটি পশ্চিম উত্তরদিকে দখল করে বাঁধ দিয়ে তোলা হয়েছে অসংখ্য স্থাপনা। মোটকথা খালটি দখলদারদের দখলে চলে যাচ্ছে। সচেতন পৌরবাসী খালটি উদ্ধার করে শহরবাসীর বসবাস উপযোগিতা রক্ষার দাবি জানিয়েছেন। কলাপাড়া পৌর কর্তৃপক্ষসহ উপজেলা ভূমি প্রশাসন যৌথভাবে খালটি রক্ষায় উদ্যোগ নিবেন বলে জানা গেছে।