কলেজ ছাত্রীকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

0

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীতে কলেজ পড়–য়া ছাত্রীকে জড়িয়ে জুনিয়রশিপ আইনজীবী মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জুনিয়রশিপ আইনজীবী মনিরুল ইসলামের বড় ভাই মো. শহিদুল ইসলাম বলেছেন, সদর উপজেলার জামুরা গ্রামে কতিপয় সন্ত্রাসী এলাকায় সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করে আসছিল। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে  মনিরুল ইসলাম কর্তৃক দায়েরকৃত ৩৮৪/২৭ নং মামলার আসামী এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ সোবাহান মৃধা (৪৫), মেহেদী হাসান রিপন (২৯), আনোয়ার মৃধা (৩৮), ইউনুচ মৃধা (৫০), মিজানুর রহমান (২৬) ও কবির বাদশা (২৫) গত ২১ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ৯টার সময় মনিরুল ইসলাম তার সিনিয়র আইজীবীর চেম্বার থেকে বাসায় ফেরার পথে লাউকাঠী বাজারে রতনের দোকানের সামনে পৌছলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তার পথ রোধ করে রামদা, লোহার রড ও দাও দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে বীরদর্পে চলে যায় সন্ত্রাসীরা। মনিরুল ইসলামের ডাকচিৎকারে আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে পটুয়াখালী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করি। এ ঘটনায় মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে উল্লেখিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

এ মামলা  করায় আসামী মেহেদী হাসান ও মিজানুর রহমানের মা কোহিনুর বেগম তার কলেজ পড়–য়া মেয়েকে উত্যক্ত করার মিথ্যা অভিযোগ এনে মনিরুল ইসলামকে সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের এবং সংবাদ সম্মেলনে কোহিনুর বেগম মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন বক্তব্য ও বর্ণনা দিয়ে প্রকৃত ঘটনা আড়াল করে সন্ত্রাসী আসামীদের রক্ষা করার অপচেষ্টা করছেন বলে শহিদুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানিয়ে তাদের  বিচার দাবী করেন।