কীটনাশক পানে এক সন্তানের জননীর মৃত্যু

0

মোঃ বাদল মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জে স্বামীর সাথে অভিমান করে কীটনাশক পানে এক সন্তানের জননী আমেনা বেগম(২৫) এর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকালে মির্জাগঞ্জ উপজেলার ময়দা গ্রামে। আমনোর লাশ মির্জাগঞ্জ হাসপাতালে ফেলে রেখে স্বামী পালিয়ে যায়। মির্জাগঞ্জ থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

এলাকাবাসি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মির্জাগঞ্জ উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ময়দা গ্রামের আলামিন সিকদারের সাথে কয়েক বছর পূর্বে একই গ্রামের আঃ সালাম হাওলাদারের মেয়ে আমেনার সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছরের মধ্যে তাদের সংসারে একটি শিশুর জন্ম হয়। কিন্তু তাদরে দু’জনের সংসারে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। ঘটনার দিনে স্বামী আলামিনের সাথে তাঁর স্ত্রী’র ঝগড়া হলে এ অভিমানে আমেনা বেগম ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে। তাঁর ডাকচিৎকারে স্বামীসহ ঘরের  লোকজন তাকে গুরুত্বর অবস্থায় মির্জাগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে আসে এবং আমেনার লাশ হাসপাতালে ফেলে রেখে স্বামী পালিয়ে যায়। এর কিছুক্ষনের মধ্যে তাঁর মৃত্যু হয়। আমেনার পিতা আঃ সালাম হাওলাদার বলেন,আমার মেয়েকে পরিকল্পত ভাবে মেরে মুূখে কীটনাশক ঢেলে দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপরে মির্জাগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মিলন মিত্র বলেন,লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী প্রেরন করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।