কুয়াকাটা পৌর নির্বাচনে আওয়ামীলীগে বিদ্রোহী প্রার্থী

2

কুয়াকাটা প্রতিনিধি : এই প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত কুয়াকাটা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি একক প্রার্থী’র বিপরীতে একাধিক মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করায় এ পৌরসভা নির্বাচন বেশ জমে উঠেছে। কুয়াকাটা পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মো. মনির ভূইয়ার ছেলে সাবের হোসেন সোহাগ আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করায় বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে দলীয় নেতা কর্মীরা।

জাপা (এ) সমর্থিত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হাওলাদার ছাড়া মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সমর্থিত প্রার্থী মো. নুরুল ইসলাম ও এনপিপি সমর্থিত রাবেয়া বেগম। এছাড়া দলীয় অবস্থান না থাকলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন কুয়াকাটা বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহ শিক্ষক ও কুয়াকাটা বাইতুল আরজ জামে মসজিদের ইমাম আলহাজ্ব মাওঃ মাঈনুল ইসলাম মন্নান। এ পৌরসভায় আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী আঃ বারেক মোল্লা ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আঃ আজিজ মুসুল্লী নির্বচনী মাঠে রয়েছেন।

 

তৃনমূলের ভোটে কুয়াকাটা পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মো. মনির ভূইয়ার নাম কেন্দ্রে পাঠানো হলেও কেন্দ্র থেকে আঃ বারেক মোল্লাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার বিক্ষুদ্ধ ভূইয়া সমর্থকরা তার ছেলেকে দলীয় প্রার্থীর বিপরীতে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দাড় করিয়েছেন এ অভিযোগ স্থানীয় দলের একাংশের নেতা-কর্মীদের।

 

কুয়াকাটা আ’লীগের একাধিক নেতা জানান, দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর কারনে এ পৌরসভায় বিএনপি ও জাপা সমর্থিত প্রার্থী এখন সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে। তাছাড়া আ’লীগ থেকে মনোনয়ন বঞ্চিত শীর্ষ নেতারাও সোহাগের পক্ষে অন্তরালে থেকে কাজ করায় দু:শ্চিন্তায় রয়েছেন আ’লীগ প্রার্থী আঃ বারেক মোল্লা।

 

সাবের হোসেন সোহাগ নিজেকে কলাপাড়া উপজেলা ও বিএম কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য পরিচয় দিয়ে বলেন, কুয়াকাটা আ’লীগ ও স্থানীয় জনগনের চাপে তিনি প্রার্থী হয়েছেন। আর আ’লীগ প্রার্থী আঃ বারেক মোল্লা কুয়াকাটার বাসিন্দা না। তিনি লতাচাপলী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান। ওই ইউনিয়ন থেকে ভোট ট্রান্সফার করে কুয়াকাটায় আসায় সাধারন মানুষ তার উপর ক্ষুদ্ধ।

 

আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী আঃ বারেক মোল্লা জানান, প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা তাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। একটি কুচক্রী মহল বিদ্রোহী প্রার্থী দাড় করিয়ে নৌকা মার্কার বিজয় ঠেকাতে তৎপর রয়েছেন বলেও তার অভিযোগ।

 

কলাপাড়া উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মঞ্জুরুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, কুয়াকাটা পৌরসভায় কেন্দ্র ঘোষিত প্রার্থীই আ’লীগের প্রার্থী। সাবের হোসেন সোহাগ দলীয় লোক না।

 

এ ব্যাপারে বিদ্রোহী প্রার্থী সাবের হোসেন সোহাগের বাবা কুয়াকাটা পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মো. মনির ভূইয়ার সাথে কথা বললে তিনি যুগান্তরকে বলেন, আমি দল করি। দলের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে আমি নির্বাচন থেকে সরে দাড়িয়েছি।’ আপনার ছেলে আপনার অনুমতি বা দোয়া চেয়ে নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার ছেলে নিজস্ব মতামতে সে নির্বাচন করছে।’