কোডেক  এর আইন সহায়তা প্রকল্পের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারীর  দিবস পালন

8

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালী  সদর  উপজেলায়  লাউকাঠি ইউনিয়নে কোডেক  এর আইন সহায়তা প্রকল্পের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারীর  দিবস পালন করা হয়েছে।যুক্তরাজ্য সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত এবং ম্যাক্র ওয়েল স্ট্যাম্প( পিএলসি ) ব্রিটিশ কাউন্সিল ও সেন্টার ফর  এফেকটিভ ডিসপিউট   রেজুলেশন  ( সিইডিআর ) এর সহযোগিতায় কোডেক এর আইন সহায়তা প্রকল্পে আন্তর্জাতিক নারীর অধিকার  দিবস পালন করেন । অনুষ্ঠানের শুরতে প্রথমে লাউকাঠি বাজারে র‌্যালি, মানব বন্ধন এবং শেষে  রয়েল একাডেমী পাঠাগার এ  আলোজনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।   অনুষ্ঠানে সদর উপজেলার  আইন সহায়তা প্রকল্পের প্রোগ্রাম অর্গানাইজার মোঃ জয়নাল আবেদীন এর সঞ্চালনে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন  সমন্বয় পরিষদ এর সহ সভাপতি গোড়াচাদ শীল ( খোকন) । বক্তব্য রাখেন আইন সহায়তা প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী জনাব আহমেদ উন-নবী তিনি উপস্থিত সকল সদস্যদের ধন্যবাদ জানান কর্মসূচীতে অংশগ্রহন করার জন্য, সেই সাথে আজকের কর্মসূচীর মূল আলোচনায়  আন্তর্জাতিক নারীর অধিকার এর প্রতিপাদ্য বিষয় টি তুলে ধরেন বলেন নারী পুরুষ সমতায় উন্নয়নের যাত্রা,বদলে যাবে বিশ^, কর্মে নতুন মাত্রা সেই সাথে তিনি আরো বলেন  আন্তর্জাতিক নারীর দিবস প্রতি বছর ৮ মার্চ তারিখে পালিত হয় সরা বিশ^ব্যাপী নারীরা একটি প্রধান উপলক্ষ্য হিসেবে এই দিবস উদযাপন করে থাকেন সেই কারনে আমরা ও প্রতি বৎসর এই কর্মসূচী পালন করে থাকি । তিনি আরো বলেন  এই দিবসটি উদযাপনের পেছনে রয়েছে নারী শ্রমিকের অধিকার আদায়ের সংগ্রামের ইতিহাস । দিবস পালনে অংশ গ্রহন করেন  অত্র ইউনিয়নের সমন্বয় পরিষদ এর সদস্যগণ, উঠান বৈঠক এর সদস্যগণ এলাকার  ইউপি সদস্যগণ এছাড়া ও স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ শতশত নারী পুরুষ ।  আলোচনায় বক্তরা বলেন, নারীর অধিকার আদায়ের জন্য আমাদের সকল কে এগিয়ে আসতে হবে এর পর বক্তব্য  রােেখন লাউকাঠি গুচ্ছ গ্রামের সভানেত্রী মোসাঃ আন্জুমান আরা বেগম তিনি বলেন কোডেক প্রতি বৎসর নারীর অধিকার নিয়ে কর্মসূচী পালন করেন আমরা সেখানে অংশ গ্রহন করি, নারীরা পুরুষের সমান  কর্মের মজুরী পায় না সে বিষয়টি প্রতি বৎসর কর্মসূচির মাধ্যমে তুলে ধরার চেস্টা করেন আমরা  নারীরা এই কর্মসূচীর মাধ্যমে পুরুষদের জানাইতে পারি এতে আমরা গর্বিতবোদ করি সকল নারীগণ । এর পর ১৮৫৭ খ্রিস্টাদ্বে মজুরি বৈষম্য, কর্মঘন্টা নিদিস্ট করা, কাজের অমানবিক পরিবেশের বিরুদ্বে প্রতিবাদ জানাতে মার্কিন যুক্তরাস্টের নিউইয়র্কেও রাস্তায় নেমে ছিল সুতা কারখানার নারী শ্রমিকরা । সেই মিছিলে চলে সরকার লাঠিয়াল বাহিনীর দমন- পীড়ন  । এরপর ১৯১০ খিস্টাদ্বে ডেনমার্কের  কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক নারী সম্মেলন । ১৭ টি দেশ থেকে ১০০ জন নারী প্রতিনিধি এতে যোগ দিয়েছিলেন । এ সম্মেলনে ক্লারা প্রতি বৎসর ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালন করার প্রস্তাব দেন । সিদ্বান্ত হয় ১৯১১ খ্রিস্টাদ্বে থেকে নারীদের সম-অধিকার দিবস হিসেবে দিনটি পালিত হবে । বাংলাদেশ ও ১৯৭১ খ্রিস্টাদ্বে স্বাধীনতার লাভের পূর্ব থেকেই এই দিবসটি পালন করে আসছে । তারাই ধারাবাহিকায় আজকে কোডেক গ্রাম পর্যায় এসে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন  করতেছেন এলাকার সকল নারীদের সাথে নিয়ে । আর কোন আলোচনা না করে সংক্ষিপ্ত   সময়ের মধ্যে কর্মসূচীটি  সমাপ্তি  ঘোষনা করেন ।