গলাচিপা উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তার  বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ

5

 

নাসির উদ্দিন গলাচিপা : গলাচিপা উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা  (ভারপ্রাপ্ত) মো: ইউনুচ হাওলাদারের বিরুদ্ধে  দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ  ব্যাপারে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড এর মহাপরিচালকের বরাবরে উপজেলা প্রাথমিক সমবায় সমিতির ভুক্তভোগীরা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো: ইউনুচ হাওলাদার গত ২০১৪ সালের ২২ ফেব্রুয়ারী ০৮ জন কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা প্রদানের সময়ে বিশ হাজার টাকা আত্মসাৎ  করেছেন। দক্ষিণ পশ্চিম লামনা কৃষক সমবায় সমিতিতে ঋণ বিতরণের সময় এক হাজার টাকা উৎকোচ গ্রহন করে ২লক্ষ ৯০ হাজার টাকার স্থলে ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা বিতরণ করেন যা বিধি বহির্ভূত। ২০১৪ সালের ৩০ নভেম্বর তারিখ প্রশিক্ষণের সময় দোয়ানী পটুয়াখালী কৃষক সমবায় সমিতির মাহাবুব রহমান, দক্ষিন পশ্চিম লামনা কৃষক সমবায় সমিতির গৌরঙ্গ চন্দ্র শীল ও হারুন সরদার এবং মধ্য পাতাবুনিয়া  কৃষক সমবায় সমিতির ছাইদুর রহমান ও ইদ্রিস সরদার এর স্বাক্ষর জাল করে প্রশিক্ষণ ভাতা গ্রহন করেছেন। উর্ধ্বতন কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়াই বসুন্ধরা ভবন সংস্কারের নামে ২ লক্ষ ৩০হাজার টাকা বরাদ্ধ দিয়ে যৎ সামান্য কাজ করে বাকী টাকা আত্মসাৎ করেন। কেয়ার ঘর মেরামতের নামে ৪৫ হাজার টাকাও আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ আছে। মো: ইউনুস হাওলাদার ও মাঠ সংগঠক আয়শা সিদ্দিকার যোগসাজসে লেবুবুনিয়া সদাবিক দলের নামে পাঁচ জন সদস্যের ভূয়া নাম দেখিয়ে ২০১৪ সালের ২২ জুলাই দেড় লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। দলের সভাপতি ও সদস্যেদের কাছে গোপন ভাবে তদন্ত করলে সত্যতা প্রমানিত হবে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।  ২০১৩ সালে মো: ইউনুচ হাওলাদার জুনিয়র অফিসার থাকাকালীন সময়েও বিভিন্ন দূর্নীতি করেছেন বলে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে গলাচিপা উপজেলার পল্লী উন্নয়ন অফিসার  (ভারপ্রাপ্ত) মো: ইউনুচ হাওলাদার জানান, আমি দুর্নীতির সাথে জড়িত নই। যে কোন কাজ ডিডি মহোদয়কে অবহিত করা হয়।  বিআরডিবির চেয়ারম্যান রেজুলেশন করে থাকেন। তিনি ওই কমিটির সদস্য সচিব। তার সুনাম সুখ্যাতি নষ্ট করার জন্য এ মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছে।

উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান মো; আলতাফ হোসেন জানান, আমার জানা মতে তিনি কোন দূর্নীতির  সাথে জড়িত নয়। তবে সুস্পস্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন  বোর্ডের উপ-পরিচালক তপন কুমার মন্ডল জানান, ইউনুছ হাওলাদারের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা হেড কোয়ার্টারে পৌঁচেছে।আমার উপর তদন্তের ভার দিলে আমি তদন্ত শুরু করব।