চরআগস্তি ফরেস্ট বিটকর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

3

 

1নাসির উদ্দিন,  গলাচিপা : পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার চরআগস্তি ফরেস্ট ক্যাম্পের বিট অফিসার নারায়ন  চন্দ্রের বিরুদ্ধে বে-আইনিভাবে বনাঞ্চলের ক্ষতি সাধন করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গত ১৫ নভেম্বর মোঃ জহির চৌকিদার, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা, পটুয়াখালী বরাবরে অভিযোগ পত্র দায়ের করেন। অভিযোগ পত্রে, ওই বিট কর্মকর্তা সরকারী নিয়ম-কানুনের তোয়াক্কা না করে  বন বিভাগের অপুরণীয় ক্ষতি সাধন করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়। অভিযোগে আরো বলা হয়, চর বাংলা, চরনজির, চরআগস্তি, দক্ষিণ চরবিশ্বাস, চরমায়া এলাকায় বন বিভাগের আয়ত্বের মধ্যে থাকা  খাল গুলি চর ভিত্তিক ১ লক্ষ থেকে ৩ লক্ষ টাকায় ৬ মাসের জন্য মৌখিকভাবে  বিভিন্ন এলাকার মৎস্যজীবিদের কাছে লিজ দিয়েছেন বিট কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র। এমনকি যাদের কাছে খাল লিজ দিয়েছেন খালের পাশে থাকা শতশত গাছ ও ডাল পালাও তাদের কাছে  বিক্রি করে প্রতি মৌসুমে প্রায় ২ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেন বলে ওই অভিযোগে উল্লেখ আছে।  খাল থেকে মাটি কেটে হাজার হাজার টাকার মাটি বিক্রি করে যা দ্বারা উক্ত খালে মৎস্যজীবিরা বাঁধ নির্মাণ করে  মাছ আহরণ করে বলে জানা যায়। বন বিভাগের পাশে খোলা নদীতে সাধারণ মৎস্যজীবিরা গোপনে গাছ কিনে ঝারা দিয়ে থাকে যার ফলে  প্রতি মৌসুমে কয়েক লক্ষ টাকার গাছ উজার হচ্ছে ওই বননাঞ্চলের। ওই এলাকার মৎস্যজীবিদের সাথে কথা বলে  জানা যায়, বন বিভাগের পাশে খোলা নদীতে স্থানীয়  জনগন মাছ ধরতে গেলে  জাল প্রতি ৫শত থেকে ১ হাজার টাকা বিট অফিসারকে দিতে হয়। টাকা দিতে অস্বীকার করলে বিভিন্ন ভাবে ভয়-ভীতি দেখায়। এমনকি তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে মিথ্যা মামলা দিবে বলেও হুমকি দেয়। তারা আরো বলেন, আমরা অভিযোগ করলে আমাদের অভিযোগ কোন কাজে আসবেনা বলেও তিনি জানান।

এলাকার সচেতন মহলের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, বিট অফিসার অনিয়ম করে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ রাজা মিয়ার কাছে বিট কর্মকর্তার বিষয় জানতে চাইলে তিনি জানান, সু-কৌশলে বিটকর্মকর্তা বনের ক্ষতি করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

এ ব্যাপারে বিট অফিসারের মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যারা আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে তাদেরকে আমি অবৈধভাবে  কোন সুবিধা দেই নি বিধায় আমার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ ।

রেইঞ্জ কর্মকর্তা ইদ্রিস মিয়া জানান,আমার মনে হয়না এ অভিযোগের কোন সত্যতা আছে, যদি আমার উপর এর তদন্তের ভার আসে তাহলে আমি এটা দেখব।

বিট কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র এক বছর পূর্বে ওই ফরেস্ট ক্যাম্পে যোগদান করেন।