জেলা প্রশাসন উচ্চ শিক্ষা বিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠা হতে যাচ্ছে

0

স্টাফ রিপোর্টারঃ শিক্ষার গুনগত মানোন্নয়ন ও বিস্তারের জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উন্নতমানের ‘জেলা প্রশাসন উচ্চ বিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বৃহষ্পতিবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসক দরবার হলে জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকী এর সভাপতিত্বে এক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা খান মোশারেফ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. দেলোয়ার হোসেন মাতুব্বর, , যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীর, পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মো. শফিকুল ইসলাম, এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সালেহ মো. হানিফ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ এড. মো. সুলতান আহমেদ মৃধা জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক গাজী হাফিজুর রহমান সবির, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রুহুল আমিন, প্রবীন সমাজ সেবক আবুল হোসেন আবু মিয়া, বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের সভাপতি গোলাম সরোয়ার ফোরকান, চেম্বারের সাবেক সভাপতি মো. শফিকুর রহমান চান, বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি মো. রিয়াজ মৃধা প্রমুখ। ‘জেলা প্রশাসন উচ্চ বিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠার জন্য স্থানীয় বৃত্তবান ব্যক্তি ও ব্যবসায়ীদের এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকী।

উল্লেখ্য, পটুয়াখালীতে দুটি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির কোটা সীমিত থাকার কারনে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী মেধা বিকাশ থেকে বঞ্চিত হওয়ার বিষয়টি উপলব্ধি করে জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকী শহরের প্রানকেন্দ্র শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্ক সংলগ্ন এক একর ৮ শতাংশ সরকারি জমিতে  ‘জেলা প্রশাসন উচ্চ বিদ্যালয়’ নাম করন করে এ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহন করেন। সভায় ‘এল’ ডিজাইনে চার তলা ভবন নির্মান করে আগামী জানুয়ারী মাসে ভর্তি ও পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ জন্য প্রাথমিক অবস্থায় এক কোটি  পঞ্চান্ন লক্ষ টাকা ব্যয় হবে বলেও সভায় জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকী জানান। এ খবরে জেলার অভিভাবক মহলে ব্যাপক উৎসাহের সৃষ্টি হয়েছে।