জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ ও জেলা পূঁজা উদযাপন পরিষদের মানববন্ধন

3

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালী দশমিনার আলীপুরায় সম্পত্তি দখল চেষ্টায় বাঁধা প্রদান করায় সংখ্যালঘু বিধবা নারী কানন বালার ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদ ও অভিযুক্তদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবিতে পটুয়াখালীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ ও জেলা পূঁজা উদযাপন পরিষদ।

শনিবারবেলা ১১ টায় স্থাণীয় লঞ্চঘাট চত্ত্বরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা হিন্দু-বৈদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য অতুল চন্দ্র দাস ও জেলা পূঁজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক কাজল বরন দাস।

বক্তরা বলেন, গত  ৮মে দশমিনার আলীপুরা বাজারে স্থাণীয় আবুল হোসেন প্যাদার নেতৃত্বে কাননবালার জমিতে ঘর তুলতে যায়। এ সময় তিনি বাঁধা দিলে তার হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করে প্রতিপক্ষ। এ ঘটনায় ১১ মে আবুল হোসেন প্যাদাসহ ১৪ জনকে আসামী করে দশমিনা থানায় মামলা করা হয়। নির্যাতিতা কাননবালা বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পটুয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ওই মামলার প্রধান আসামী জেল হাজতে থাকলেও ১২ জন আসামী জামিনে আছেন।

মানববন্ধনের আগে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের ২৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে নতুন বাজার আখড়াবাড়ি মন্দির থেকে একটি র‌্যালী বের হয়ে লঞ্চঘাট চত্ত্বরে শেষ হয়।