ঝুঁকিপূর্ণ পটুয়াখালীর প্রতাবপুর বাজার সেতু

13

জাহাঙ্গীর হোসেনঃ পটুয়াখালীর লোহালিয়া ইউনিয়নের প্রতাবপুর বাজার সেতুটি দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় এলাকাবাসীর আতঙ্কের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। প্রতিদিন এই সেতুটি পার হতে গিয়ে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন স্কুলগামী শিক্ষার্থী, মহিলা ও শিশুসহ বয়বৃদ্ধরা। উভয় পাশের ৭ গ্রামের প্রায় ২০ হাজার মানুষের চলাচলে সেতুটি মরণফাঁদে পরিনত হলেও সংস্কার কিংবা পূনঃনির্মাণে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। পটুয়াখালীর লোহালিয়া ইউনিয়নের কুড়িপাইকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কুড়িপাইকা গ্রামের মধ্যদিয়ে বয়ে যাওয়া প্রতাবপুর খালের ওপর এই সেতু। সেতু দিয়ে দু’পাশের পশ্চিম কুড়িপাইকা,দক্ষিন কুড়িপাইকা, উত্তর কুড়িপাইকা, মধ্য কুড়িপাইকা,পূর্ব কুড়িপাইকা,সন্নাসীকান্দাসহ ৬ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ ঝুঁিক নিয়ে চলাচল করেন। এছাড়া পশ্চিম পার্শ্বে কুড়পাইকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,দক্ষিন পার্শ্বে দক্ষিন কুড়িপাইকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,পার্শে¦র সন্নসীকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,মধ্য কুড়িপাইকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,বামনিকাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কুড়িপাইকা আফতাব উদ্দিন দাখিল মাদ্রাসাসহ প্রতাবপুর বাজারের লোকজন প্রতিদিন এই সেতু ব্যবহার করে থাকেন। সেতুর সিমেন্টের শ্লাব (পাটাতন) প্রায় ৪বছর আগে রিকশাসহ অন্যান্য যানবাহন চলাচলে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পর স্থানীয়রা কাঠের তক্তাও বাশ দিয়ে কোন রকম মেরামত করলে ও স্থায়ী সংস্কারের কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। কুড়িপাইকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী জুই,মিতু,সম্মিতা রানী, ঝুমুর, লাইজু, সোহানা, ফাতিমা কুলসুমসহ শিক্ষার্থীরা জানায়,সেতুটি দিয়ে পাড় হতে গিয়ে গত দু’বছরে বিভিন্ন সময়ে প্রায় ২৫/৩০ বার শিক্ষার্থী দূর্ঘটনার শিকার হয়েছে। কুড়িপাইকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোসাং সেলিনা নাছরিন বলেন,আমার ছেলে সাজিদ কুড়িপাইকার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র। বিদ্যালয়ে আসার সময় সেতু পাড় হতে গিয়ে সেতুর সিমেন্টের শ্লাব ফাকা দিয়ে নিচে পড়ে যায়। পরে স্থানীয়র উদ্ধার করে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের নিয়ে যায়। ওই বিদ্যালয়ের প্রাধান শিক্ষক মোঃ বাবর আলী বলেন,প্রতিদিন এ সেতু দিয়ে স্কুল-মাদ্র্রাসার হাজারও শিক্ষার্থী এবং সাধারন মানুষ পার হতে গিয়ে প্রায় দুর্ঘটনায় পড়েন। আথচ জনগুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মানে দীর্ঘদিনে ও কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। কুড়িপাইকা গ্রামের বৃদ্ধ ছালাম গাজী জানান,সেতুটির পশ্চিম পাশে শুক্রবার-সোমবার প্রতাবপুর হাট, বুধবার বামনীকাঠি হাট,রবিার বগা বন্দর হাট এবং দক্ষিন পাশে ঘেরের হাট বসে। বিকল্প কোন পথ না থাকায় হাটবারে মালামাল পরিবহনসহ লোকজনকে যাতায়াতে দূর্ভোগ পোহাতে হয়। এ ব্যাপারে লোহালিয়া ইউপি’র চেয়াম্যান এ্যাড.কবির তালুকদার জানান, সেতুটি সংস্কারের অভাবে এলাকার মানুষ কষ্টে আছেন। শীঘ্রই এ সেতুটি সংস্কারের উদ্যেগ নেয়া হবে।