ডিজিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

0

বিশেষ প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীতে অবৈধ নিয়োগের অভিযোগ এনে মাধ্যমিক  ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদকসহ ৮জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গাবুয়া জনতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্জ্ব মোঃ ইউনুচ আলী মৃধাসহ ৭জন বাদী হয়ে সিনিয়র সহাকারী জজ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। যার নং ১৬১/১৬।

রবিবার দুপুরে পটুয়াখালীর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক জেলা যুগ্ম জজ ওসমান গনি মামলাটি আমলে নিয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে কারন দর্শানোর নোটিশ জারী করেছেন। মামলায় অন্যান্য আসামীরা হলেন, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন এবং সদ্য অবৈধভাবে নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষক সেলিনা আক্তার ও মোঃ বশির উদ্দিন।

মামলায় বলা হয়েছে, গত ১৮ এপ্রিল ২০১৬ ইং তারিখে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি গোলাম সরোয়ার, প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেনসহ মামলার আসামীরা নিয়ম বর্হিভূত ভাবে প্রধান শিক্ষকের স্ত্রী সেলিনা বেগম ও মোঃ বশির উদ্দিন নামে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে দুইজনকে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। যা ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বিভিন্ন পদে আশিন থাকা সদস্যরা অবগত নয়। মামলায় আরো উল্ল্যেখ করা হয়, কোন পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না করে গোপনীয়তা রক্ষা করে টাকার বিনিময় এই দুই শিক্ষককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ অনিয়মের জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারসহ অনেকেই জড়িতে রয়েছেন।

জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রুহুল আমীন খান  জানান, ‘মামলা হয়েছে এমন ঘটনা আমার জানা নাই।  আমি এখন ছুটিতে আছি।’

গাবুয়া জনতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সস্পাদক গোলাম সরোয়ার বলেন, ‘যথাযথ প্রক্রিয়ায় শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কমিটি নিয়ে বিরোধ রয়েছে, তাই একটি পক্ষ মামলা করতে পারে।