দুটি গ্রুপে সংঘর্ষ দেবর ভাবী  নিহত ॥ আহত- ১০॥ গ্রেফতার – ২

2

স্টার্ফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীর লোহালিয়া ইউনিয়নের কুড়িপাইকা গ্রামে বিরোধীয় জমিতে গাছ লাগানকে নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে দুটি গ্রুপের মধ্যে এক সংঘর্ষে ২ জন জন নিহত হয়েছে  ।এ সময় উভয় গ্রুপে মহিলা ও শিশু সহ ১০ জন আহত হয়েছে । গুরুতর আহত দেবর ভাবী রুস্তুম আলী মাঝি (৬৫) ও মালেকা বেগম (৪৫)  কে বরিশাল হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান । অন্যান্য আহতদের ২৫০ শয্যা বিশিস্ট পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে । আহতরা হলো রোকেয়া (৫০), সেলিনা (২৮) , আফজাল (২৫), হেলেনা (১৪), মজিবর (৩৪) ও  হামিদা (৩৫), হাফেজ মুন্সী (৩০),রাবেয়া বেগম (২৮), জসিম মুন্সী (৩৮)। পরে পুলিশ এ জোড়া হত্যায় জড়িত থাকার দায়ে আহত হাফেজ মুন্সি ও তার ভাবী রাবেয়া বেগমকে পটুয়াখালী  হাসপাতাল ওয়ার্ড থেকে গ্রেফতার করে ।

অহতদের ও পুলিশ  সুত্রে জানা গেছে, লোহালিয়া ইউনিয়নের ৮ নং  কুড়িপাইকা গ্রামের নিহত রুস্তুম আলী মাঝির সাথে প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ মৃত ধলু মুন্সির ছেলে হাফেজ মুন্সি, ওহাব মুন্সি, জসিম মুন্সি ও রাজ্জাক মুন্সি গং দের ৪০ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছিল । বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭ টার সময় জসিম মুন্সি ও হাফেজ মুন্সি গং ঐ বিরোধীয় জমিতে মাটি কেটে গাছ লাগাচ্ছিল । এ সময় রুস্তুম আলী মাঝি , তার স্ত্রী  রোকেয়া বেগম , দুই মেয়ে সেলিনা বেগম ,হেলেনা বেগম ও ভাইর বৌ মালেকা বেগম সেখানে বাধা দিতে গেলে প্রতিপক্ষ তাদের কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে । গুরুতর আহত অবস্থায় এদেরকে  বেলা সাড়ে ১১ টায়  ২৫০ শয্যা বিশিস্ট পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে স্থানীয় জনতা ও স্বজনরা । কিন্তু সেখানে রুস্তুম আলী মাঝি ও মালেকা বেগমের অবস্থার অবনতি ঘটলে  চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য এদের দুজনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ  হাসপাতালে  প্রেরন করা হয় । এ প্রসংঙ্গে ঐ এলাকার ইউপি সদস্য হায়দার মাঝি জানান,  বরিশাল নেয়ার পূর্বেই বেলা আনুমানিক  সাড়ে  ১২ টার সময় বাকেরগঞ্জ এলাকায় মালেকা বেগম ও তার অদুরে রুস্তুম আলী মাঝি মারা যান । পরে তাদের কে পুনরায় পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যাওয়া হয় ।

পটুয়াখালী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত। ) আবুল বাশার জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা তদন্তাধীন রয়েছে । তবে পুলিশ ইতি মধ্যেই  হাসপাতাল এলাকা থেকে এ জোড়া খুনের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে হাফেজ মুন্সি ও তার ভাবী রাবেয়া বেগমকে গ্রেফতার করেছে । নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে । মৃত্যুর খবরে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে  শোকের ছায়া নেমে আসে। ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।