দুমকিতে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে হামলা-লুটপাট ও জমি দখলের অভিযোগ

0

pic-1

এম.রহমান, দুমকি : পটুয়াখালীর দুমকিতে গত সোমবার গভীর রাতে এক নিরিহ পরিবারের বসত বাড়িতে সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়ে মালামাল ভাংচুর লুট-পাট ও জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার নলদোয়ানী গ্রামের জনৈক ইউনুচ মুন্সির বাড়িতে হামলা-ভাংচুর, লুট-পাট ও জমি দখলের ঘটনাটি ঘটেছে। খবর পেয়ে গত মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে। ঘরের বেড়া কেটে ও আসবাবপত্র তছনছ করে ধরে নিজেরাই হামলা-লুটপাটের নাটক সাজাঁনো হয়েছে বলে দাবি করেছেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা।
থানা পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থ ইউনুচ মুন্সীর পরিবারের দেয়া অভিযোগ বলা হয়, সোমবার রাত আনুমানিক ৩টার সময় বাড়ির সবাই যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন ঠিক সেই সময় একই বাড়ির ইউপি সদস্য মিজান মুন্সীর নেতৃত্বে ২৫/৩০জনের একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী বসত: ঘরে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা ঘরের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করলে ধাক্কাধাক্কি ও ডাক-চিৎকারের শব্দে পরিবারের সদস্যদের ঘুম ভেঙ্গে যায়। ডাকাত পড়েছে এ ভয়ে গৃহকর্তা ইউনুচ মুন্সী পেছনের দরজা খুলে অন্ধকারে আত্মগোপন করে থাকে। এদিকে সন্ত্রাসীরা টিনের বেড়া কুপিয়ে ও পিটিয়ে ভাংচুর করে ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে নগদ ৫০হাজার টাকা, স্বর্ণালংকারসহ প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে। একই সময় সন্ত্রাসীদের অপর সহযোগীরা বাড়ির পার্শ্ববর্তি বিরোধীয় জমি দখল করে রাতারাতি একটি টিনের ঘর তুলে দ্রুত সটকে পড়ে।
থানায় সন্ত্রাসী হামলা লুটপাটের অভিযোগ দায়ের করা হলেও ঘটনাস্থলের বাসিন্দারা কেউ টের পায়নি। বেশ কয়েকজন প্রতিবেশী অভিযোগ করেন, রাতে কোন ধরণের হামলা-লুটপাটের ঘটনা ঘটলে আশ-পাশের লোকজন তা টের পাওয়ার কথা। সকালে ইউনুচ মুন্সীর পরিবারের লোকজন এ হামলা লুটপাটের প্রচারণা থেকে প্রতিবেশীরা জেনেছেন।
অভিযোগটি পুরোপুরি সাজাঁনো নাটক দাবি করে প্রতিপক্ষ ইউপি সদস্য মিজান মুন্সী জানান, আমার পৈত্রিক জমিতে সোমবার সকালে একটি ঘর তুলেছি। ওই জমি নিয়ে ইউনুচ মুন্সীর সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলছে। ঘর তোলায় বাঁধা না দিয়ে রাতে নিজের বসত:ঘরের বেড়া কেটে ও মালামাল ছড়িয়ে ছিটিয়ে লুটপাটের ঘটনা সাজিয়েছে। প্রকৃতার্থে এমন কোন ঘটনাই ঘটেনি। ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুমকি থানার এসআই সুমন জানান, প্রাথমিক ভাবে হামলা-লুটপাটের ঘটনাটি সাজাঁনো বলে মনে হচ্ছে। তবে তদন্তে প্রকৃত ঘটনা প্রকাশ পাবে।
#