নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও গলাচিপায় চলছে অবাধে জাটকা নিধন

10

নাসির উদ্দিন, গলাচিপা : নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও  পটুয়াখালীর গলাচিপায় অবাধে চলছে জাটকা ইলিশ ধরা ও বিক্রি । ১ নভেম্বর ২০১৫-থেকে ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত জাটকা ধরা ও বিক্রির উপরে সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকলেও  গলাচিপায় একাধিক বাজারে চলছে জাটকা ইলিশ বিক্রি । জানা গেছে প্রতি রাতে গোপনে নদীতে জাল ফেলে  জাটকা ইলিশ ধরে পরের দিন সকালে বাজারে বিক্রি করছে কিছু অসাধু জেলে।

তবে এব্যাপারে বাজারের কিছু মাছ বিক্রেতাকে জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন, জানিনা জাটকা বিক্রি করার ব্যাপারে কতদিন কি নিষেধাজ্ঞা আছে, তবে প্রতিদিন দেখি বাজারে অনেকে জাটকা বিক্রি করছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সাধারণ মানুষ জানান, কোস্টগার্ড ও মৎস্য কর্মকর্তা জেলেদের কাছ থেকে বড় অংকের টাকা খেয়ে জাটকা ধরা ও বিক্রিতে মদত দিচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জেলে সাংবাদিকদের জানান বিভিন্ন সময়ে জেলেদের কাছ থেকে উদ্ধারকৃত লক্ষ লক্ষ টাকার জাল ও দড়ি কোস্টগার্ড ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোপনে বিক্রি করে আসছে, এবং তিনি আরো জানান যে, তারা মানুষকে দেখানোর জন্য কিছু জাল পুড়িয়ে দিলেও বিপুল পরিমান জাল তারা নিজেদের কাছে মজুত রাখে,  পরে সেই রেখে দেওয়া জাল ও দড়ি কিছু জেলেদের কাছে বিক্রি করে দেয়।

জাটকা বিক্রির ব্যাপারে উপজেলা  মৎস্য কর্মর্কতা অঞ্জন বিশ্বাস এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান বাজারে জাটকা বিক্রি হয় কিনা তা আমি জানিনা তবে বিষয়টি দেখব, তিনি আরো বলেন ১০ ইঞ্চি মাছের বেলায়  কোন নিষেধাজ্ঞা নাই।