পটুয়াখালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে এক মহিলা সহ দুই জন আহত ॥ পাঁচ জনকে আসামী করে মামলা

7

 

08ডেস্ক রিপোর্ট : পটুয়াখালী সদর উপজেলার ইটবাড়িয়া ইউনিয়নের শারিকখালী গ্রামে জমি জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক মহিলাসহ দুই জনকে রক্তাক্ত জখম করেছে বিরোধী পক্ষরা। এ ঘটনায় রুহুল আমিন আকন (৩৫), আনোয়ার আকন (৩২), বাতেন সিকদার (৩২), জামাল সিকদার (৩০) ও আউয়াল সিকদার (৬০)কে আসামী করে  আহত রাশিদা বেগম ও হানিফ আকনের ছেলে সোহেল আকন বাদী হয়ে গতকাল বৃহষ্পতিবার পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৭৭২/১৫।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরনে জানাগেছে, উক্ত আসামীদের সাথে বাদী সোহেল আকনের পরিবার সদস্যদের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ ও মামলা মকদ্দমা চলে আসছিল। আসামীরা স্থানীয় শালিস বিচার না মেনে জোর পূর্বক জমি দখলের চেষ্টায় সোহেল আকনের পরিবার সদস্যদের বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। এ ঘটনা পুলিশ সুপার পটুয়াখালীর কাছে লিখিত অভিযোগ করায় উক্ত আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনারদিন ২৩ নভেম্বর সোমবার আনুমানিক সকাল ৮টায় রুহুল আমিন আকন, আনোয়ার আকন, বাতেন সিকদার, জামাল সিকদার ও আউয়াল সিকদার গং হানিফ আকনের শারিকখালী মৌজায়, জেএলনং ৫০, হাল খতিয়ান নং ৮১/৮২, হাল দাগ ৪৯৭/৪৯৯/৫০০ দাগের কতক অংশে  জোরপূর্বক দোকান ঘর তৈরী করার চেষ্টা করে। এ সময় হানিফ আকন, রাশিদা বেগম ও সোহেল বাঁধা দিলে উল্লেখিত আসামীরা তাদেরকে ধাওয়াকরে। এতে প্রানের ভয়ে দৌড়ে ঘরে প্রবেশকালে আসামীরা সোহেলের মা রাশিদা বেগমকে ধারাল আস্ত্র ও লাঠিসোটা দিয়ে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে এবং হানিফের কাছে থাকা নগদ ১০হাজার টাকা, রাশিদা বেগমের কানে থাকা স্বর্ণের কানবালা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা রাশিদা বেগম ও হানিফ আকনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এঘটনায় উক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে  পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আমলী আদালতে মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ বিচারক তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পটুয়াখালী সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করেছেন বলে জানান বাদী সোহেল আকন ।