পটুয়াখালীতে হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড় 

2

পটুয়াখালীতে শুক্রবার বিকেল ৫টায় হঠাৎ করে আঘাত হেনেছে কালবৈশাখী ঝড় । ঝড়ের তান্ডবে জেলায় প্রায় শতাধিক  কাচা বাড়িঘর,বহু গাছ পালা ও বিদ্যুতের খুটি লন্ড ভন্ড করে দিয়েছে ।

সদর উপজেলার ইটবাড়িয়া ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া শারিকখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঃ লতিফ খন্দকার জানান, শুক্রবার বিকেল আনুমানিক সোয়া ৫টার দিয়ে আমাদের এলাকায় হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। আমি বাড়িতে ছিলাম। হঠাৎ মুঠোফোনে জানতে পারি আমার প্রতিষ্ঠানটি ঝড়ে পড়ে গেছে। শুনে প্রতিষ্ঠানে এসে দেখি ঝড়ে বিদ্যালয়টির অফিসরুম , প্রধান শিক্ষকের বসার রুমসহ  ১২০ ফুট লম্বা এবং ২৮ ফুট পাশের টিনসেট  বিদ্যালয়াট সম্পন্ন পড়ে গেছে। প্রতিষ্ঠানের পৃষ্টপোষক গোলাম রাব্বানী জানান, বিদ্যালয়ে প্রায় ৪ শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যালয়টি পড়ে যাওয়ায় আজ শনিবার ক্লাশ মাঠে নিতে হবে। প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।  শনিবার থেকে কি ভাবে স্কুলে শিক্ষকরা ক্লাশ করবেন এই নিয়ে চিন্তিত রয়েছে স্কুলের শিক্ষার্থীরা। এদিকে  হেতালিয়া বাধঘাট এলাকায় কালবৈশাখী ঝড়ের তান্ডবে ফকু হাওলাদারের চায়ের দোকান সম্পূর্ণ পড়ে নিয়ে যায়। এতে তার দোকানের মালামাল সহ প্রায় ২লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান। এছাড়া শেরেবাংলা সড়কে মজিবুর চৌধুরীর বাড়ির একটি টিনসেড ঘরের বড় গাছ পড়ে। সামনে ফার্নিচারের  দোকানটি সম্পন্ন ক্ষতি হয়।