“ পটুয়াখালী জেলা সদর হাসপাতালে সংক্রমণ প্রতিরোধক ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম হস্তান্তর”

40

পটুয়াখালীতে কনসার্ন ওয়ার্ল্ড ওয়াইড (ঈড়হপবৎহ ডড়ৎষফ ডরফব)- এর নেতৃত্বে বৃটিশ সরকারের ঋঈউঙ এর অর্থায়নে এর অর্থায়নে কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড সহ আরো ৮ (আট) টি সহযোগী সংস্থার মাধ্যমে বাস্তবায়িত “সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর জন্য অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবা” প্রকল্পের পক্ষ থেকে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিস্ট জেলা হাসপাতালে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ সামগ্রী ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরণ করা হয়েছে। ডা: মোহাম্মদ আবদুল মতিন,তত্ত্বাবধায়ক,২৫০ শয্যা বিশিস্ট জেলা সদর হাসপাতাল, পটুয়াখালী। বাস্তবায়নকারী সংস্থ্যা পার্টনার্স পার্টনার্স ইন হেলথ্ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) এর প্রতিনিধি মোঃ মোমেন খান,বিভাগীয় কর্মসুচী সমন্বয়কারী, ইএইচডি প্রকল্প সংক্রমণ প্রতিরোধক ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা গ্রহণ করেন। প্রকল্প বাস্তবায়নকারি সংস্থা পার্টনার্স ইন হেলথ্ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) এর তত্ত্বাবধানে পটুয়াখালী জেলা সদর হাসপাতালের পেশাদারদের জন্য ১৪ প্রকার ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম ও সংক্রমণ প্রতিরোধক বিতরণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের সার্বিক নির্দেশনায় দেশের দক্ষিণ উপকূলীয় অঞ্চলে এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে।

উক্ত করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ সামগ্রী ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরণ কালে ২৫০ শয্যা বিশিস্ট জেলা সদর হাসপাতাল, পটুয়াখালীর ভিন্ন কর্মকর্ত সহ পিএইচডি ও আরএইচস্টেপ প্রতিনিধিগন উপস্থিত ছিলেন।

ডা: মোহাম্মদ আবদুল মতিন,তত্ত্বাবধায়ক,২৫০ শয্যা বিশিস্ট হাসপাতাল, পটুয়াখালী, কনসার্ন ওয়ার্ল্ড ওয়াইড (ঈড়হপবৎহ ডড়ৎষফ), বৃটিশ সরকারের ঋঈউঙ এবং পিএইচডি-কে এই করোনা মোকাবেলায় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামাদি প্রদানের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন “ ইএইচডি প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর জন্য অত্যাবশ্যকীয় স্বাস্থ্যসেবায় করোনাকালীন হ্যান্ড স্যানিটাইজার, স্টেরিলাইজার, ব্লিচিং পাউডার, স্প্রে মেশিন ইত্যাদি অতিপ্রয়োজনীয় জিনিস বিশেষ করে স্বাস্থ্যসেবায় অধিকগুরুত্বপূর্ণ জিনিস বিতরণ করার জন্য পিএইচডিসহ সকল সংস্থাকে ধন্যবাদ জানান। তিনি সংস্থার কার্যক্রমকে আরো বেগবান ও তৃণমূল পর্যায়ে এর ব্যাপ্তি ছড়িয়ে দেয়ার আহবান জানান। তিনি ইএইচডি প্রকল্পের জন্য শুভ কামনা এবং ভবিষ্যতে যে কোন প্রয়োজনে সহায়তার প্রতিশ্রুতি প্রদান করে।”
কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় প্রস্তুতি ও সহায়তা পরিকল্পনা (এনপিআরপি) কে সহায়তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশে সরকার কতৃক গঠিত স্থানীয় কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলা কমিটির সাথে সমন্বয় করে ইএইচডি প্রকল্প বরিশাল বিভাগের ভোলা, পটুয়াখালী ও বরগুনা ৩ টি জেলায় বিভিন্ন উদ্যোগ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য যে, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে যুক্তরাজ্যের দাতা সংস্থা এফসিডিও এর আর্থিক সহযোগিতায় পার্টনারস ইন হেলথ্ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (চঐউ) বরিশাল বিভাগের ৩টি জেলার মোট ৮টি উপজেলায় এই প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী সংস্থা হিসেবে কাজ করছে।