পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে আ-জীবনবহিষ্কার সহ ১২ শিক্ষার্থীকে শাস্তি

0

 

স্টার্ফ েিরাপার্টারঃ শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি)১২ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এরমধ্যে একজনকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আ-জীবনের জন্য বহিস্কার, চারজনকে সেমিষ্টার বহিস্কার, পাঁচ জনের জরিমানা এবং ৩ শিক্ষার্থীকে শোকজ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার প্রফেসর ড. সুলতান মাহমুদ স্বাক্ষরিত একাধিক  নোটিশে সাজা সম্পর্কে জানানো হয়েছে। বুধবার রাতে এবং বৃহস্পতিবার বিভিন্ন হলে ওই নোটিশ পাঠিয়ে দেয়া হয়।

পবিপ্রবি সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসের সিটে বসাকে  কেন্দ্র করে শিক্ষার্থী দুইগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হল ও কেরামত আলী হলের বিভিন্ন কক্ষে ব্যাপক ভাংচুর করে। তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি প্রক্টর সন্তোষ কুমার বোস ও বায়োটেকনোলোজি বিভাগের শিক্ষক রফিকুল ইসলামসহ ১০ ছাত্র ও শিক্ষক আহত হন। ওই ঘটনায় দীর্ঘ তদন্ত শেষে শাস্তিসহ জরিমানা করা হয়।

বিভিন্ন মেয়াদে সাজাপ্রাপ্তরা হল রাতুল দেউড়ি মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের ৩য় সেমিষ্টারের শিক্ষার্থী তাঁকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আ-জীবনের জন্য বহিস্কার করা হয়েছে, বিবিএ ৫ম সেমিষ্টারের শাকিল বারি তানিমকে এক সেমিষ্টারের জন্য বহিস্কার, কৃষি অনুষদের ৫ম সেমিষ্টারের সাইফুল ইসলাম খান রুবেলকে দুই সেমিষ্টারের জন্য বহিস্কার, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অনুষদের ৫ম সেমিষ্টারের অমিত চন্দ্র রায়কে এক সেমিষ্টারের জন্য বহিস্কার এবং ২০হাজার টাকা জরিমানা, মাৎস্য অনুষদের ১ম সেমিষ্টারের এইচ এম কামরুল ইসলামকে এক সেমিষ্টারের জন্য বহিস্কার, কৃষি অনুষদের মাষ্টার্স ৩য় সেমিষ্টারের নিয়াজ মাখদুমকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, ফিসারিজ অনুষদের ৫ম সেমিষ্টারের আরিফুল ইসলাম প্রিন্স ও একই বিভাগের সাব্বির আহম্মেদকে শোকজ, এছাড়াও মাৎস্য অনুষদের ৫ম সেমিষ্টারের মো. মনিরকে শোকজ নিউট্রিশন এন্ড ফুড সায়েন্স অনুষদের ৫ম সেমিষ্টারের আ ন ম সফিউল্লাহ অভিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, কৃষি অনুষদের ৩য় সেমিষ্টারের ফাহিম শাহাদতকে ২০হাজার টাকা জরিমানা এবং কম্পিউটার সায়ন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ৭ম সেমিষ্টারের সাইফুল ইসলাম সাঈদকে ২০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।