পটুয়াখালী শেখ রাসেল শিশুপার্কে আজ শুক্রবার থেকে ৩দিনব্যাপি ৩৫তম জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মেলন শুরু

2

 

ডেক্স রির্পোটঃ জীবন যদি আজ কঠিন হয়েই থাকে,মাভৈ: মাভৈ:।মুক্তকন্ঠে অভয়ের গান গেয়ে দেশবাসীকে নিয়ে আমরা ঝড়ের সমুদ্র পাড়ি দেব। সমস্ত বিপদ উত্তীর্ণ হয়ে মুক্তি অর্জন করব, এই প্রত্যয় নিয়ে আজ ১১মার্চ শুক্রবার বিকেল থেকে পটুয়াখালী শেখ রাসেল শিশুপার্কে ৩দিনব্যাপি ৩৫তম জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মেলন শুরু হচ্ছে।

৩দিনব্যাপি অনুষ্ঠিত সূচির মধ্যে রয়েছে শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় মুক্তি তোরে পেতে হবে রোধন সংগীত।পরে অতিথিদের মঞ্চে আসন গ্রহণ। বিকেল সাড়ে ৪টায় জাতীয় রবীন্দ্র সম্মেলন পরিষদ সাধারন সম্পাদক লাইসা আহমদ লিসা‘র স্বাগত বক্তব্য। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন ৩৫তম জাতীয় রবীন্দ্র সম্মেলন উদযাপন পরিষদ সদস্য সচিব ফরিদুজ্জামান খান। ৪টা ৫০ মিনিটে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও আশীর্বাণী‘র মাধ্যমে ৩৫তম জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মেলন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। ৫টা ১০ মিনিটে সভাপতি সন্জিদা খাতুনের বক্তব্য। ৫টা ২০ মিনিটে সংগীতানুষ্ঠান।সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলন, রবিরশ্মি ,আবৃত্তি,নৃত্য,সংগীতানুষ্ঠান এবং জাতীয় সংগীত। ১২ মার্চ শনিবার সকাল সাড়ে ৭টায় সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটার উদ্দেশ্যে যাত্রারম্ভ।সকাল সাড়ে ১০টাং প্রীতি সম্মেলন, শুভেচ্ছা বক্তব্য ,সম্মেলক ও একক সংগীত, আবৃত্তি এবং রাখাইন নৃত্য। সন্ধ্যা  সোয়া ৬টায় প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলন, রবিরশ্মি,আবৃত্তি,নৃত্য,সংগীতানুষ্ঠান এবং জাতীয় সংগীত।১৩ মার্চ রবিবার সকাল ৯টায় পটুয়াখালী শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অপর্ণ।সাড়ে ১০টায় সেমিনারে শিক্ষা-চিন্তক ও শিক্ষা -কর্মী বরীন্দ্রনাথ এর ওপর মূল প্রবন্ধ পাঠ করবেন প্রাবন্ধিক মফিদুল হক।বেলা ১২ টায় প্রতিনিধি / প্রশিক্ষণ। বিকেল সাড়ে ৪টায় সমাপনী অধিবেশনে অতিথিদের মঞ্চে আসন গ্রহণ।শোকপ্রস্তাব পাঠ রবীন্দ্র পদক ও সম্মাননা। গুনীব্যক্তি শিল্পী ও শিক্ষক নির্মল দাশ গুপ্ত‘র  বক্তব্য ।প্রধান অতিথি শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ারের বক্তব্য।সাধারণ সম্পাদকের ধন্যবাদ জ্ঞাপন। সভাপতির সমাপনী বক্তব্য।সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলন, রবিরশ্মি,আবৃত্তি,নৃত্য,সংগীতানুষ্ঠান এবং জাতীয় সংগীত এবং ৩দিনব্যাপি অনুষ্ঠিত ৩৫তম জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মেলনের সমাপ্তি।