পবিপ্রবি’র সৃজনী স্কুল এন্ড কলেজে ফের ১০ শিক্ষার্থী অসুস্থ

6

মজিবুর রহমান,দুমকি প্রতিনিধি: পটুয়াখালী বিশ্ববিদ্যালয়ের সৃজনী বিদ্যানিকেতন (স্কুল এন্ড কলেজে) অজ্ঞাত রোগে ফের ১০ শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছে । বৃহস্পতিবার ক্লাশ চলাকালীন বেলা সোয়া ১১টার দিকে ৫ম, ৮ম ও ১০ শ্রেণীর অন্তত ১০ শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত তাদের পবিপ্রবি’র মেডিকেল সেন্টার, লুথ্যারাণ হাসপাতাল ও উপজেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর পরই কর্তৃপক্ষ স্কুল ছুটি দিয়ে দেয়।

অসুস্থ শিক্ষার্থীর অভিভাক ও সাধারন ছাত্র-ছাত্রীরা জানায়, বৃহস্পতিবার পৌণে ১১টার দিকে ৫ম শ্রেণীর ১জন শিক্ষার্থী হঠাৎ মাথা ঘুড়িয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে দেখাদেখি ওই ক্লাশের আরও ৩/৪জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে যায়। শ্রেণী শিক্ষকসহ স্কুল কর্তৃপক্ষ অসুস্থ ছাত্রছাত্রীদের দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে পাঠিয়ে দেন। এর পর পরই ৮ম ও ১০ শ্রেণীর আরও অন্তত: ৫/৬জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হলে কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিক স্কুল ছুটি দিয়ে সবাইকে যার যার বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। সৃজনী স্কুল এন্ড কলেজের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. আবদুস কুদ্দুস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিৎ করে বলেন, আগের দিনের মতো কয়েকজন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের হাসপাতালে পাঠানে হয়েছে। তবে কি কারনে একই ক্লাশের শির্ক্ষার্র্থীরা অসুস্থ হচ্ছে তা বলতে পারছেন না। কিছুক্ষণ পর পরই অন্যান্য ক্লাশের শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হলে স্কুল ছুটি দিয়ে দেয়া হয়েছে।

অসুস্থদের মধ্যে লুথ্যারাণ হাসপাতালে ৮জন, বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে ১জন ও উপজেলা হাসপাতালে ১জন ভির্তি করা হয়েছে। এছাড়া এ তিন হাসপাতালে অন্তত: ৫/৬ শিক্ষার্থীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। এঘটনায় সৃজনী বিদ্যা নিকেতনের শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। অভিভাবকরাও তাদের শিশু সন্তানদের নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। এলইচসিবি’র কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. নেছার উদ্দিন বলেন, এটি একটি ভাইরাস জনিত সমস্যা। প্রাথমিক চিকিৎসায় ভালো হয় এতে আতংকিত হওয়ার কোন কারণ নেই। উপজেলা হাসপাতালের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, এটি ভাইরাস সংক্রমিত সমস্যা। যার নাম ম্যাস্-সাইকোজেনিক ডিজঅর্ডার । ম্যাস সাইকোজেনিক ডিজঅর্ডার আক্রান্ত রুগীর শরীর ঘামিয়ে শ্বাসকস্ট বৃদ্ধি পায়। ¯œায়ু দুর্বল শিশুরা এ রোগে সবচে বেশী আক্রান্ত হয় এবং একযোগে বহু সংখ্যেক শিশু আক্রান্ত হতে পারে। তবে দ্রুত অক্সিজেনসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসায় স্বল্প সময়েই সুস্থ হয়ে যাবে।  এতে আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারন নেই। এর আগেও গত ৩১ জুলাই একই ভাবে সৃজনী বিদ্যানিকেতনের অন্তত ৫০জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়