পরীক্ষার ফি দিতে না পারায় বাউফলে এক শিক্ষার্থীকে পরীক্ষার হল থেকে বের করে দিলেন শিক্ষক

3

অতুল পাল, বিশেষ প্রতিনিধি ঃ বাউফলের বাজেমহল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী পরীক্ষার ফি দিতে না পারায় তাকে পরীক্ষার হল থেকে বের করে দিয়েছে এক শিক্ষক। পরীক্ষা দিতে না পেরে অবশেষে তাকে বাড়ি চলে যেতে হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

সূত্র জানায়, কেশবপুর ইউনিয়নের বাজেমহল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গত ১ অক্টোবর থেকে মডেল টেস্ট শুরু হয়েছে। ওই পরীক্ষায় অংশ নিতে ফাজিলপুর গ্রামের জেলে হেলাল রাড়ির ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মিরাজ হোসেনের নিকট পরীক্ষার ফি ও অন্যান্য ভাতাদিসহ ২ হাজার ৩২৫ টাকা ধার্য করে। নদীতে মাছ শিকারে অবরোধ চলায় হাতে নগদ টাকা না থাকায় জেলে হেলাল তার ছেলের পরীক্ষার জন্য অন্যের থেকে ধার করে ৩০০ টাকা দেন এবং বাকি টাকা কয়েক দিন পরে দেবেন বলে অঙ্গীকার করেন। গতকাল বুধবার ওই শিক্ষার্থী শারিরীক শিক্ষা বিষয়ে পরীক্ষা দিতে গেলে শ্রেণি শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন টাকার জন্য তাকে গালমন্দ করে পরীক্ষা কক্ষ থেকে বের করে দেন। ওই শিক্ষার্থীকে প্রধান শিক্ষক কিংবা অন্য কোন শিক্ষকের সাথে দেখাও করতে দেননি। মিরাজ পরীক্ষা দিতে না পেরে বাড়ি গিয়ে কান্নাকাটি করতে থাকলে তার বাবা “গড়িবের জন্য লেখাপড়ার দরকার নাই” বলে ছেলেকে মারধর করে। বিষয়টি সম্পর্কে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পারভীন বেগম বলেন, এক্ষেত্রে আমার সাথে দেখা না করে চলে গেলে আমার কিছু করার নাই। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কেশবপুর কলেজের অধ্যক্ষ সালেহ উদ্দিন পিকু বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছেন বলে জানিয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহামুদ জামান এ সংবাদ জেনে বিষ্ময় প্রকাশ করে বলেন, এখনই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।##