পশুরীবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এসএমসি ও শিক্ষকদের সাথে সনাকের সভা

4

ডেক্স রির্পোট ঃ পটুয়াখালী সদর উপজেলার পশুরীবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) পটুয়াখালী এর যৌথ উদ্যোগে গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এসএমসি ও শিক্ষকদের সাথে সনাকের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নবগঠিত স্কুল ম্যানেজিং কমিটি (এসএমসি)র সভাপতি মো: সেলিম মুন্সির সভাপতিত্বে ও টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার মো: হুমায়ুন কবীর এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শারমিন সুলতানা, অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সনাক সভাপতি মো: আবদুর রব আকন, সদস্য পিযুষ কান্তি হরি, ইউপি সদস্য মো: মিজানুর রহমান, এসএমসি’র সহসভাপতি মো: মেহেদী হাসান উজ্জ¦ল, প্রাক্তন এসএমসি’র সভাপতি মো: জসিম উদ্দিন প্রমূখ।সভার কার্যবিবরণী উপস্থাপন ও ফলোআপ এবং বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়ন ও গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিদ্যালয়ের শিক্ষার মানোন্নয়নে এসএমসি ও শিক্ষকদের ভূমিকা, অবকাঠামোগত উন্নয়ন। সভায় সিদ্ধান্ত হয় চলতি মার্চ মাসের মধ্যে বিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য কর্মকর্তা হিসেবে সহকারি শিক্ষক এইচএম জসীম উদ্দীন এর নামে সনাকের পক্ষ থেকে নেইমপ্লেট করে দেয়া হবে এবং হালনাগাদ তথ্য দিয়ে তথ্য বোর্ডটিও সংস্কার করে দেয়া হবে। সভায় পশুরীবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর সমাপনি পরীক্ষায় এ প্লাস পাওয়া ২ জন শিক্ষার্থীকে সম্বর্ধনা দেয়া হয় এবং তাদের একটি করে স্কুল ব্যাগ ও টিআইবি’র বর্ণমালায় নীতিকথা বই প্রদান করা হয়। সভাপতির সমাপনি বক্তব্যে এসএমসি’র সভাপতি বলেন, অচিরেই বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর করে দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে যাতে শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ বজায় থাকে। তিনি আরো বলেন, এসএমসি’র মূল কাজ বিদ্যালয়ের যেকোন প্রয়োজনে সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দিয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখা। তিনি সনাকের কাজের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে সনাকের কাজ অব্যাহত রাখার অনুরোধ করেন। সনাক সভাপতি বলেন, আমরা সনাকের শুরু থেকে এখানে কাজ করি বিদ্যালয়টি এ গ্রেডের দ্বারপ্রান্তে, এ গ্রেডে উন্নীত হলে আমরা এখান থেকে ফেইজ আউট হবো এ জন্য সকলকে একযোগে কাজ আহ্বান জানান।সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সনাক সদস্য এড. সহিদুর রহমান, স্বজন সদস্য তপন কর্মকার, এসএমসি’র সদস্যবৃন্দ, বিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলী, ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডস প্রতিনিধিবৃন্দ।