প্রধানমন্ত্রী আজ পায়রা সমুদ্র বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন

0

ডেক্স রিপোর্টঃ পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া গ্রামে  দেশের তৃতীয় সমুদ্র বন্দর পায়রা সমুদ্র বন্দরের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হচ্ছে ১৩ আগষ্ট শনিবার। ২০১৩ সালের ১৯ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রা বন্দর গড়ে তোলার জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। দেশের একমাত্র গভীর এই সমুদ্র বন্দরের মাদার ভ্যাসেল থেকে পণ্য খালাস কার্যক্রম ১৩ আগষ্ট ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করবেন ।

পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, ১৩ আগষ্ট শনিবার বেলা ১১ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্স করে নবনির্মিত গভীর এই পায়রা বন্দরের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন। এ সময় পায়রা বন্দর প্রান্তে উপস্থিত থাকবেন নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি, নৌপরিবহন মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মেজর (অব) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. মাহবুবুর রহমান, নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল নিজাম উদ্দিন আহমেদ, অর্থ সচিব মাহবুব আহমেদ, বানিজ্য সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক, স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সচিব আব্দুল মালেকসহ বিভাগীয় এবং জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তারা ।

রাবনাবাদ চ্যানেলের বহির্নোঙর থেকে পণ্য খালাস করার জন্য এমভি পেয়ারা-৬, এমভি ফেকু মিয়া, এম ভি সৈনিক-৫, এম ভি নিউটেক-২, এমভি নিউটেক-৬, এম ভি মেরিন-৫, এম ভি মেরিন-৮, এম ভি টাইগার অব ইষ্ট বেঙ্গল-৭, কেএসএল প্রাইড এবং কেএসএল গ্রøাডিয়েটর নামের ১০টি লাইটার এবং ইন্টারন্যাশনাল সারভাইভাল জাহাজ জেটি সংলগ্ন নদীতে পন্য খালাসের জন্য অপেক্ষা করছে।

পায়রা  বন্দরের কম্পাউন্ডের মধ্যে ইতিমধ্যে একটি প্রশাসনিক অফিস, কর্মকর্তাদের জন্য আবাসিক ভবন, নিরাপত্তা ভবন, ব্যারাক হাউস, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, অভ্যন্তরীন সড়ক, শুল্কায়ন কার্যক্রম একং বিদ্যুতায়ন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।

পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মুহাম্মদ রেজাউল কবীর বলেন, পণ্য খালাস কার্যক্রম শুরু হলে বন্দরটি সচল হবে। বন্দরকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠবে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান। তাছাড়া এ এলাকার জীবনযাত্রায়ও এর প্রভাব পড়বে। দেশের অর্থনীতিও গতিশীল হবে।