বঙ্গোপসাগরে ফের জলদস্যুদের হানা মাছ ধরার ট্রলারসহ ছয় জেলেকে অপহরণ

0

নাসির উদ্দিন বিপ্লব, কুয়াকাটা ঃ কুয়াকাট সংলগ্ন দক্ষিন বঙ্গোপসাগরের ফেয়ার বয়া পয়েন্টে জেলেদের মাছ ধরা ট্রলারে ফের ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত চলে এ ডাকাতি। এ সময় পটুয়াখালীর আলিপুর মৎস্য বন্দরের এফবি এলমা ট্রলারে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা ট্রলারসহ ছয় জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে অপহরন করে নিয়ে গেছে। এরা হচ্ছেন মাঝি রুহুল আমিন, জেলে শুক্কুর মিস্ত্রী, শানু, আল-আমিন, বজলু ও নাঈম। এর মধ্যে শুক্কুরের বাড়ি বরগুনায়। অপর জেলেদের বাড়ি কলাপাড়া উপজেলায়।

এ ঘটনায় কলাপাড়া থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। একই ট্রলারের ফেরত আসা জেলে জসিম জানায়, সোমবার দিবাগত ভোর রাতের দিকে একদল জলদস্যু তাদের ওপর সশস্ত্র হামলা চালায়। অস্ত্রের মুখে ট্রলারের ১৭ জেলেকে জিম্মি করে ফেলে। মারধর করে ১১জনকে তারা অন্য ট্রলারে তুলে দেয়। বাকি ছয়জনকে ট্রলার, মাছ ও জ¦ালানিসহ অপহরন করে নেয়।

এদিকে কুয়াকাটা আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমিতির সভাপতি আনছার উদ্দিন মোল্লা দাবি করেছেন, আলীপুর এলাকার আরও অন্তত ৬টি মাছধর ট্রলারে ডাকাতিসহ একই সময় অন্তত ২০ জেলে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে।

কুয়াকাটা-আলীপুর ট্রলার ও মৎস্য আড়ৎদার সমবায় সমিতির সভাপতি আনছারউদ্দিন মোল্লা আরও জানান, চলতি মাসের ১২ অক্টোবর মুক্তিপনের দাবীতে শতাধীক জেলে অপহৃত থাকলেও এখন পর্যন্ত তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এদের মাথা পিছু ২ লাখ টাকা দিয়ে নিদ্রা ছকিনার মিলন মাঝি (৪০) ফারুক মাঝি (৫৫) ও আ: রব মাঝি (৩৫) বাড়ীতে ফিরে এসেছে। ডাকাতরা ট্রলার মালিকদের সাথে ভারতীয় এয়ারটেল ০০৯১৮৬৭০৭৭৬৮৬০ সিম ব্যবহার করে মুক্তিপনের টাকা পাঠানোর জন্য নির্দেশ করছে। সুন্দরবনের আরপাঙ্গাশিয়া নদী, রায়মঙ্গল, নীলকমল, কালিরচর, বালিরখাল ও ঘেউখালি নদীর মোহনায় টহল জোরদার করলে এ সকল জলদস্যুদের ধরা সম্ভব বলে মনে করেন আনছার মোল্লা।

কলাপাড়া থানার ওসি মোহাঃ আজিজুর রহমান জানান, বাগেরহাট জেলা সংলগ্ন সুন্দরবন এলাকার কাছাকাছি ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সেখানকার পুলিশ প্রশাসনসহ কোস্টগার্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার সৈয়দ মোশফিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, পটুয়াখালীর জলসীমায় ট্রলার ডাকাতি সংগঠিত হয়নি। ডাকাতি হয়েছে বাগেরহাট জেলার সুন্দরবনের ফেরার বয়া অঞ্চলে। তাই মামলার বিষয়টি বাগেরহাট পুলিশ দেখবে। তবে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার কিছু জেলে ট্রলারসহ অপহৃত হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি।##