বরগুনার আমতলীতে আনন্দমেলায় দু গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৫০

5

আমতলী প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলীতে আনন্দমেলায় দু গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে ৫০ ব্যক্তি আহত হয়েছে।  পৌরশহরের ফায়ার সার্ভিস  ষ্টেশন সংলগ্ন মাঠে আবাহনী ক্রীড়া চক্রের সাহার্য্যার্থে মাসব্যাপী আনন্দ  মেলা চলছিল।  মেলায় ছিল সার্কাস, যাত্রা ও পুতুল নাচের নামে নগ্ন নৃত্য, বিভিন্ন নামে জুয়া যেমন হাউজি, চরকা, ফাইভ সুট, ওয়ান সুট ও রাফেল ড্র। প্রতিদিন সন্ধ্যা  থেকে রাতভর চলছিল এ যজ্ঞ। শুক্রবার রাতে মেলায় কয়েক দফা সংঘর্ষ বাঁধে। হামলায় সার্কাসের শিল্পীরাও আহত হয়। আহতরা হল আইয়ূব গাজী (৪২ মো: রুবেল (৩০), আতিকুর রহমান (৩০), সবুজ মাঝি (৩০), ফরিদ ম্যালাকার (৪৫), আতিকুর রহমান (৩২),  মো: হুমায়ুন কবির (৩০), মনির হোসেন (৩২) , বজলু সরদার (৬০) সবুজ আকন (৩০), অলি (৩২)। আহতদের মধ্যে আইয়ূব গাজীকে বরিশাল, আতিক, ফরিদ, সবুজ মাঝি, সবুজ আকন ও অলিকে পটুয়াখালী এবং মনির হোসেন ও বজলু সরদারকে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, সার্কাস প্যান্ডেলে প্রবেশকে কেন্দ্র স্থানীয়  প্রভাবশালী দুই গ্রুপের সংঘর্ষ বাঁধে। সাকার্সের  নিরাপত্তা কর্মী  মো. নাসির জানান রাত নয়টার দিকে ১২/১৫ জন লোক সার্কাসের ভিতরে প্রবেশ করতে চায়। তাদেরকে প্রবেশ করতে বাধা দিলে তারা  জোরপূর্বক সার্কাসের মধ্যে প্রবেশ করে।  এ ঘটনা কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ বাঁেধ।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা পূলক চন্দ্র রায় জানান এ ঘটনায় থানায় কোন মামলা হয়নি। পরিস্থিতি শান্ত  রয়েছে। আপাতত আনন্দ মেলা বন্ধ থাকবে।