বরগুনার পাথরঘাটায় শিক্ষিকার রোষানলে শিক্ষার্থী

1

জয়দেব রায়, বরগুনা : বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার ৫৮নং খাস্তাভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষিকার ডাস্টারের আঘাতে চতুর্থ শ্রেনীর এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

আহত জিহাদের মা খাদিজা বেগম জানান, রবিবার স্কুল চলাকালীন সময় শিক্ষার্থীদের গানের প্রশিক্ষন দিচ্ছিলেন শিক্ষিকা মাকসুদা বেগম এসময় তার ছেলে জিহাদ এবং অন্য এক শিক্ষার্থী সবুজ দুজনকে কথা বলতে দেখলে মাকসুদা আপা জিহাদকে লক্ষ্য করে টেবিলে থাকা ডাস্টার ছুড়ে মারলে তা লাগেনি এর পর অন্য এক ছাত্র ডাস্টারটা তুলে আপার হাতে দিলে আপা আবার জিহাদকে লক্ষ্য করে ডাস্টার ছুড়ে মারলে জিহাদের চোখে লাগে। এর পর জিহাদ কান্না করলে আপা জিহাদকে এক রুমে নিয়ে অনেকক্ষন আটকে রাখে। এরপর চোখের অবস্থা খারাপ দেখে জিহাদকে ছুটি দিয়ে দেয় মাকসুদা আপা। জিহাদ বাড়ী আসার সাথেসাথে চোখের অবস্থা দেখে কাকচিড়া বাজারে ডাক্তারের কাছে নিলে চোখের অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

 

পল্লী চিকিৎসক গোলাম কবির বলেন, আমার কাছে জিহাদ কে আনার পর প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি তখন ৫/৬ বার বমি করেছে এবং চোখেও আঘাত দেখে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে বলেছি।

 

এবিষয় সহকারী শিক্ষিকা মাকসুদা বেগমের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি কিন্তু তার স্বামী শাহীন আজাদ জানান, যে ঘটনা ঘটেছে তা আমরা মিমাংসার চেস্টা করছি।

 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুন নাহার জানান, এই ঘটনার সময় আমি অফিসিয়াল কাজের জন্য উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ে ছিলাম। তবে তেমন কিছু ঘটেনি সামান্য একটু ব্যাথা পেয়েছে জিহাদ।

 

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জালাল আহম্মেদ জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি। তবে অভিযোগ দিলে আমি আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো।