বাউফলে এক ইউপি মেম্বর কর্তৃক সাবেক মেম্বারের দোকান দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

21

স্টাফ রিপোর্টার॥

পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের বর্তমান ইউপি সদস্য ভূমিদস্যু পরিতোষ হাওলাদার কর্তৃক জোরপূর্বক কবলাকৃত সম্পত্তির দোকান ঘর দখলের পায়তারা, মিথ্যা মামলা দিয়া হয়রানী এবং পত্রিকায় ভুয়া সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সাবেক ইউপি সদস্য মোতালেব হাওলাদার। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য (৫ নং ওয়ার্ড) আবদুল মতলেব হাওলাদার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আবদুল মতলেব হাওলাদারের ছেলে মামুন হাওলাদার। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, মো. আবদুল মতলেব হাওলাদার একই গ্রামের পরেশ চন্দ্র হাওলাদারের কাছ থেকে ০২.১০.২০০৪ ইং তারিখ ও ওয়ালিউল ইসলামের কাছ থেকে ০৬.০৬.২০১৩ ইং তারিখ জে.এল ১১৩, এস.এ ৪১৮ নং খতিয়ানের ১৮৬৪ নং দাগ হইতে ৩.৫০ শতাংশ ভূমি বগা-হাজির হাট ডানিডা রাস্তার মাধবপুর বাজারের ডানিডা রাস্তার পূর্ব ও পশ্চিম পাশ চৌহদ্দী দিয়া ক্রয় করে দোকান দিয়ে ব্যবসা বানিজ্য করে আসছে। দিনে দিনে ব্যবসা বানিজ্য ভাল ও ভূমির মূল্য বৃদ্ধি হওয়ায় ইউপি সদস্য পরিতোষ হাওলাদার গং ওই জমি দখলের জন্য মতলেব হাওলাদার ও তার ছেলে মামুন হাওলাদারকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করে। সম্প্রতি করোনার কারনে অনেক দিন বন্ধ থাকায় উইপোকায় দোকান ঘরটি ক্ষতির কারনে ঘরটি মেরামতের প্রয়োজন হয়। তাই পিতা-পুত্র ১০.০৮.২০ইং তারিখ সকালে কাঠ মিস্ত্রী দ্বারা দোকান ঘরটি মেরামত শুরু করলে ইউপি সদস্য পরিতোষ হাওলাদার বিকাল ৪টায় ভাড়াটিয়া একদল সন্ত্রাসী লোক নিয়ে ভোগ দখলীয় দোকান ঘর উচ্ছেদ করার জন্য ভাংচুর করে খুন জখমের হুমকি দিয়ে মারধর শুরু করলে ডাক চিৎকারে স্থানীয় লোজন উপস্থিত হলে সন্ত্রাসীদের মারধর থেকে রক্ষা পান পিতা-পুত্র। এ ঘটনা ইউপি চেয়ারম্যানকে জানালে তিনি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিগণকে শালিসের দায়িত্ব দেন। শালিসগন উভয় পক্ষের কাগজ পত্র পর্যালোচনা করে সঠিক রায় দিবে বুঝে পরিতোষগং শালিস অমান্য করে চলে যায়।
শালিস বিচার না মানায়, মতলেব হাওলাদার ১৩.৮.২০ইং তারিখ বাউফল বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালতে দেওয়ানী মোকদ্দমা দায়ের করেন। মামলা নং-৫৭/২০২০। এ মামলা করায় ইউপি সদস্য পরিতোষগং মতলেব হাওলাদার ও মামুন হাওলাদারের নামে বিভিন্ন রকম অপপ্রচারচালিয়ে তাদের নামে জুলুমবাজ পরিতোষ হাওলাদার ১০.০৯.২০২০ ইং তারিখ পাঁচ লক্ষ টাকার মিথ্যা চাঁদাবাজীর মামলা করে। এ মামলার পরদিন শুক্রবার সকাল ১০ টায় মতলেব হাওলাদারের দোকানে ইউপি সদস্য পরিতোষ হাওলাদারসহ চেনা অচেনা ১০-১২ জন সন্ত্রাসী লোক হামলা চালায় এবং দুই লক্ষ টাকা চাঁদার দাবী করে। এ চাঁদা টাকা দিতে অস্বীকার করায় তাকে চাঁদার দাবীতে মারধর করে দোকানে থাকা ১০-১২ হাজার টাকার মুশুরী ডালসহ অন্যান্য মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ডাক চিৎকার করলে মতলেব হাওলাদারকে খুন জখমের হুমকী দিয়ে বীর দর্পে চলে যায়। এ সন্ত্রাসী ঘটনায় পরিতোষসহ চার জনকে আসামী করে পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ২য় আদালতে মামলা করেন মতলেব হাওলাদার। মামলা নং সি.আর নং- ২০৯/২০২০। যা তদন্তাধীন আছে।
উক্ত মামলা করায়, ইউপি সদস্য পরিতোষ সাংবাদিকদেরকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে “সংখ্যা লঘুর দোকান দখল করে বিএনপি নেতা” শিরোনামে একটি পত্রিকায় ভুয়া সংবাদ প্রকাশ করায়। যা সম্পূর্ন মিথ্যা এবং বানোয়াট বলে সংবাদ সম্মেলনে সাবেক ইউপি সদস্য মতলেব হাওলাদার সাংবাদিকদের জানান। সংবাদ সম্মেলনে পিতা-পুত্র ঐ জুলুমবাজ ভূমিদস্যু সন্ত্রাসবাজ, চাঁদাবাজ পরিতোষ হাওলাদারের হাত থেকে তাদের কবলাকৃত সম্পদ ও দোকান ঘর রক্ষা করতে পারে তার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাবেক ইউপি সদস্য মতলেব হাওলাদার। #