বাউফলে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু

0

অতুল পাল,বিশেষ প্রতিনিধি: পটুয়াখালী বাউফলের কালাইয়া ইউনিয়নের কর্পূরকাঠী গ্রামে খালেদা আক্তার (৩০) নামের এক গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকাল ৫টার দিকে বাউফল থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছেন। ঘটনার পর স্বামী টিপু মাতব্বর ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।

জানা গেছে, প্রায় দশ বছর আগে উপজেলার দাসপাড়া ইউনিয়নের দাশপাড়া গ্রামের আবদুর রাজ্জাক খানের মেয়ে খালেদা আক্তারের সাথে কালাইয়া ইউনিয়নের কর্পূরকাঠী গ্রামের আবদুল মজিদ খানের ছেলে টিপু মাতব্বরের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের জন্য গৃহবধু খালেদাকে নির্যাতন করত। এ নিয়ে স্থানীয় ভাবে একাধিক বার সালিশ-বৈঠকও হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, সালিশ বৈঠকের পর কিছু দিন ভাল থাকলেও  পরে আবার তাদের মধ্যে ঝগড়া কলহ হতো। ঘটনার দিন গত শনিবার বেলা ৩ টার দিকে খালেদার বাবার বাড়িতে খবর দেয়া হয় যে, খালেদা অসুস্থ হয়ে মারা গেছে। খবর পেয়ে খালেদার ভাইসহ অন্যান্যরা খালেদার বাড়ি যান। খালেদার ভাই আল আমিন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, তার বোনকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। বেলা ১১ টার দিকে তার বোনকে নির্যাতন করা হয়েছে বলে এলাকার লোকদের থেকে জানা গেছে। ঘটনাস্থলে থাকা কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান এএসএম ফয়সাল আহমেদ মনির হোসেন মোল্লা জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় খবর দেয়া হয়েছে। পুলিশ এসে সুরাত হাল প্রতিবেদন প্রস্তুত করে পরবর্তি পদক্ষেপ নেবেন। বাউফল থানার ওসি আযম খাঁন ফারুকী বলেন, বিকেল ৫ টার দিকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।