বাউফলে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার,স্বামী পলাতক

0

অতুল পাল, বিশেষ প্রতিনিধি: বাউফল পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের কাগুজিরপুল এলাকায় বুধবার দুপুরে বাদশা খানের ঘর থেকে মোসা. রেখা বেগম (২২) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামী মো. রাসেল সরদার (২৫) পলাতক রয়েছে। যৌতুকের জন্য মেয়েকে তার স্বামী শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে রেখার মা মোসা. নিলুফা বেগম অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য লাশ পটুয়াখালী মর্গে পাঠিয়েছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও রেখার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রায় দেড় বছর আগে বাউফল পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দাশপাড়া গ্রামের মো. শাহ কামালের মেয়ে রেখা বেগমের সঙ্গে একই গ্রামের মো. ফকু সরদারের ছেলে অটো গাড়ি চালক মো. রাসেল সরদারের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে মো. আবদুল্লাহ আল আনছারি নামে দেড় মাসের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। চার মাস আগে রাসেল পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের কাগুজিরপুলের পশ্চিম পাশ এলাকায় বাদশা খানের ভাড়া বাসায় মা,বাবা ও স্ত্রী-সন্তান নিয়ে উঠেন। তার মা সেলিনা বেগম (৫০) ও বাবা ফকু সরদার (৬০) দিনমজুরের কাজ করেন। অভাবের সংসার। এ কারণে বিভিন্ন সময় তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। রাসেল অটো গাড়ি কেনার জন্য বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে স্ত্রী রেখাকে চাপ দেয়। এনিয়ে ঘটনার দিন সকালেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়েছে। রাসেলের মা সেলিনা বেগম বলেন, সকাল বেলা আমরা দুইজন (স্বামী-স্ত্রী) কাজে যাই। দুপুর বেলা খবর পাই বউ গলায় রশি দিয়া আতœহত্যা করছে। এর বেশি কিছু আমি জানি না। স্থানীয়দের থেকে খবর পেয়ে বাউফল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে রাসেল পলাতক রয়েছে। বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আযম খান ফারুকী বলেন, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের গলায় দাগ রয়েছে। তবে লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার আগে হত্যা না আতœহত্যা বলা যাবে না।