বাউফলে প্রকাশ্যে দুই সহোদরকে নির্মম নির্যাতন

0

 

তুল পালবিশেষ প্রতিনিধি: বাউফল পৌর শহরের কাগুজীরপুল এলাকায় দুই সংখ্যালঘু সহোদরকে প্রকাশ্যে রাস্তায় ফেলে নির্মমভাবে  নির্যাতন করা হয়েছে। এ সময় সরকার  বানিজ্য ভান্ডার নামের তাদের  একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দুই সহোদরকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

 

জানা গেছে, পৌর শহরের ৩ নম্বর ওয়র্ডের বাসিন্দা মিলন সরকার জায়গার উপর দিয়ে কামাল হোসেন নামের এক ঠিকাদার কয়েক দিন আগে একটি ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু করলে তারা কাজে বাধা দেন। এপর্যায় ওই ঠিকাদার ড্রেন নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেন। এর জের ধরে ঘটনার দিন দুপুর পৌনে দুইটার দিকে ৮-১০ জন সন্ত্রাসীরা কাগুজীরপুল এলাকায় গিয়ে মিলন সরকার (৩০) ও তার ছোট ভাই সবুজ সরকারকে (২৫) তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরকার বাণিজ্য ভান্ডার থেকে টেনে হিচরে রাস্তায় নামিয়ে প্রকাশ্যে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে জখম করে। এরপর সন্ত্রাসীরা সরকার বাণিজ্য ভান্ডারে ঢুকে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে। ঘটনাটি ওই এলাকার লোকজন প্রত্যক্ষ করলেও সন্ত্রাসীদের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায়নি। ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক  সবুজ সরকার অভিযোগ করেন, মেয়র জুয়েল গ্রুপের উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান মৃধার নেতৃত্বে ৮-১০ জন সন্ত্রাসী দল এ ঘটনা ঘটিয়েছে। হামলাকারীরা তাদের প্রতষ্ঠান থেকে প্রায় ১২ লাখ টাকা লুট করে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে ছাত্রলীগ সভাপতি সাইদুর রহমান হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। সংখ্যালঘু ওই পরিবারের সদস্যরা ভয়ে থানায় মামলাও করতে পারেনি।