বাউফলে মাছ চাষিদের মাথায় হাত

8

অতুল পাল, বিশেষ প্রতিনিধি: স্বরণকালের প্রবল বর্ষণে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাউফলের কেশবপুর ইউনিয়নের মাছ চাষিরা। প্রবল বর্ষণে মাছের ঘের তলিয়ে লাখ লাখ টাকার মাছের পোনা ভেসে যাওয়ায় নি:স্ব হয়ে গেছে বেশ কয়েকটি পরিবার। নতুন করে মাছ চাষ করার মত অর্থ চাষিদের হাতে না থাকায় মাথায় হাত পড়েছে তাদের।

সরেজমিন দেখা গেছে, গত ২০ আগষ্ট প্রবল বর্ষণে কেশবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন অঞ্চল তলিয়ে যায়। পানির চাপে এনামুল হক অপু, গোলাম হোসেন সিকদার, সোহাগ সিকদার, রুহুল আমিন এবং মহিউদ্দিনসহ ১০/১২ জন চাষিদের মাছের ঘের ও পুকুর তলিয়ে যায়। ঘের ও পুকুর তলিয়ে লাখ লাখ টাকার রই, কাতলা, সিলভারকাপ ও পাঙ্গাস জাতীয় মাছের পোনা ভেসে গেছে। সব ধরণের চেষ্টা করেও পানির প্রবল চাপে তারা মাছের পোনা রক্ষা করতে পারেনি। সর্বস্ব হারানো চাষিরা জানান, বিভিন্ন এনজিও ও ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে তারা মাছের চাষ করেছিলেন। এখন তারা কিস্তি দিতেও পারছেন না। নতুন করে মাছ চাষ করার মত অর্থও তাদের কাছে নেই। এক কথায় এখন সংসার চালাতেই তাদের কষ্ট হচ্ছে।

এনামুল হক অপু জানান, দেড় হেক্টর জমিতে ঘের করে প্রায় ৬ লাখ টাকার মাছের পোনা ছাড়া হয়েছিল। এখন সব শেষ। সোহাগ সিকদার জানান, ধার কর্জ করে এক হেক্টর জমিতে প্রায় ৩ লাখ টাকার মাছ চাষ করেছিলাম। এখন নি:স্ব হয়ে গেছি। কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন লাভলু জানান, প্রবল বর্ষণে তার ইউনিয়নেই বেশি ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে অবহিত করা হয়েছে। চাষিদের আবারো মাছ চাষে সহায়তা প্রদানের সার্বিক চেষ্টা করা হচ্ছে।