বাউফলে ১ হাজার ২৫১ হতদরিদ্র পরিবার ফেয়ার কার্ডের সুবিধা থেকে বঞ্চিত 

3

 

অতুল পাল, বিশেষ প্রতিনিধি: বাউফলের দাশপাড়া ইউনিয়নের ১হাজার ২৫১জন তালিকাভূক্ত হতদরিদ্র সরকারের ১০টাকা কেজি চাল ক্রয়ের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি ও ট্যাগ অফিসার কেএম সোহেল রানার খামখেয়ালিপনার  কারণে ফেয়ার কার্ডগুলো এখন পর্যন্ত বিতরণ করা হয়নি। বর্তমানে ফেয়ার কার্ডগুলো উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তার কার্যালয় আটকা পরে আছে। দাশপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনএন জাহাঙ্গীর হোসেন অভিযোগ করেন, গত ১১ আগস্ট ইউনিয়ন কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১হাজার ২৫১জন হতদরিদ্রদের তালিকা করে সভাপতির কাছে জমা দেয়া হয়েছে। সভাপতি ওই তালিকা থেকে ২০০ দরিদ্রর নাম বাদ দিয়ে তার পছন্দের ২০০ নাম তালিকায় অর্ন্তভূক্ত করতে চাইলে কমিটির অন্যান্য সদস্যরা আপত্তি করেন। এ নিয়ে দ্বন্দের কারণে ফেয়ার কার্ড বিতরণ না করে আটকে রাখায় হতদরিদ্রতা সরকারের এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মজিবুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, গত ১ অক্টোবর থেকে বাউফলের অন্যান্য ইউনিয়নে সরকারের ১০ টাকা কেজি চাল বিক্রির কার্যক্রম শুরু হলেও অদৃশ্য কারণে দাশপাড়া ইউনিয়নে এ কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে পত্র প্রেরণ করলেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। ফলে সরকারের ভাবমূর্তি বিনষ্ট হচ্ছে। তবে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানান, দাশপাড়া ইউনিয়নের ১ হাজার ২৫১ জন হতদরিদ্রদের তালিকা প্রনয়ন নিয়ে তালবাহানার করণে ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য হানিফ সরদার বাদি হয়ে গত ২৯ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ চার জনের বিরুদ্ধে পটুয়াখালী আদালতে মামলা করেন। ওই মামলার ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত দাশপাড়া ইউনিয়নে হতদরিদ্রদের এ কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব হচ্ছেনা।