বাড়ীর পুকুরপাড় থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার তালতলীতে সৎপুত্রকে হত্যার অভিযোগে মা’য়ের আত্মহননের চেষ্টা

0

 

কে এম সোহেল, আমতলী প্রতিনিধিঃ তালতলীতে ৯ বছর বয়সী এক কিশোরের লাশ নিজ বাড়ীর পুকুর পার থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদিকে সৎপুত্রকে হত্যার করার মুল চক্রান্তকারী হিসাবে অভিযুক্ত সৎ মা হাতের কাছে পাওয়া হুইল ওয়াশিং পাউডার খেয়ে আত্মহননের চেষ্টা করে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের করমজাপাড়া গ্রামে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, ঐ গ্রামের সোহরাফ হোসেন সিকদার (৪০)ও তার স্ত্রী ২ কন্যা সন্তানের জননী চম্পা বেগমের সাথে ২০১৩ইং সালে সাংসারিক ভাবে বিভিন্ন মতনৈক্যের সৃষ্টি হয়। তখন স্ত্রী চম্পা বেগম রাগ করে কলাপাড়া উপজেলার কুয়াকাটায় বাবার বাড়ী গিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করলে ঐ মামলায় স্বামী সোহরাফ হোসেন সিকদার জেলহাজতে যান। জেলহাজত থেকে মুক্তি পেয়ে ২০১৪ সালের প্রথম দিকে সোহরাফ হোসেন ৬বছর বয়সী শিশুপুত্র রাব্বিকে নিয়ে পপি বেগমকে দ্বিতীয় বিবাহ করে। সোহরাফের সংসারে এসে ২০১৫ সালে পপির গর্ভে জন্ম নেয় এক কন্যা সন্তান। এদিকে বাবার বাড়ীতে থাকা চম্পা বেগম তার সন্তানদের নিয়ে ৩বছর পর গত নভেম্বর-২০১৭ মাসে স্বামী সোহরাফ হোসেনের বাড়ীতে আসে। এরপর ২ সতীন চম্পা ও পপির মধ্যে শুরু হয় ঝগড়াঝাটি। চম্পা ঝগড়াঝাটির এক পর্যায় বহুবার পপি ও তার সন্তানদের হত্যার হুমকি দেয়। ঘটনার রাতে পূর্বের মত পপি তার পুত্র রাব্বি ও কন্যাকে নিয়ে শিক বিহীন জানালার পাশের চৌকিতে এবং সোহরাফ হোসেন ১ম স্ত্রী চম্পা ও তার সন্তানদের নিয়ে আলাদা চৌকিতে ঘুমিয়ে ছিলেন। ভোরে পপি বেগমের ঘুম ভাঙ্গলে তার সন্তান রাব্বিকে না পেয়ে ডাক চিৎকার দেয়। পরে তাকে নিজ বাড়ীর পুকুর পাড়ে মৃত্যু অবস্থায় পাওয়া যায়। তবে রাব্বির গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। রাব্বি হত্যার জন্য পপি বেগম তার সতীন চম্পাকে দায়ী করেন। আতংকে সৎ মা চম্পা হাতের কাছে পাওয়া হুইল ওয়াশিং পাউডার খেয়ে আত্মহননের চেষ্টা করে। এক পর্যায় গুরুতর অবস্থায় চম্পাকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

তালতলী থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় বলেন, রাব্বিকে তাদের বাড়ীর পুকুর পাড় থেকে মৃত্যু অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তার গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সৎ বাবা সোহরাফ হোসেনকে থানায় ডেকে আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার হারুন-অর-রশিদ জানান, হুইল ওয়াশিং পাউডার খেয়ে অসুস্থ্য হয়ে চম্পা নামের এক মহিলারোগী সোমবার ১০টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার অবস্থা একটু উন্নতির দিকে।