বিএনপি এখন খালেদার মামলার রায়কে ইস্যু করে নির্বাচনে না আসার পথ খুঁজছে- পায়রা বন্দরে নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান

4

 

গোফরান পলাশ, বিশেষ প্রতিনিধি কলাপাড়া: নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি বলেছেন, ‘বিএনপি এখন খালেদার মামলার রায়কে ইস্যু করে নির্বাচনে না আসার পথ খুঁজছে।  দেশ এবং সরকার বিরোধী কোন রাজনৈতিক কর্মসূচী দিয়ে তা সফল করার সক্ষমতা তাঁদের নেই। তাদের মুখে এক কথা, অন্তরে আরেক কথা। বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার রায় ঘোষণার খবরকে কেন্দ্র্র করে নৌমন্ত্রী আরও বলেন, পৃথিবীর বহুদেশে রাষ্ট্রপ্রধানসহ অনেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলায় সাজা হয়েছে। তিনি এসময় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফসহ একাধিক বিদেশী সাজাপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের নাম উল্লেখ করেন। সেখানে এনিয়ে কোন কথা ওঠেনা। আগামি নির্বাচনী হেরে যাওয়ার শঙ্কা থেকে বিএনপি নির্বাচনে না আসার পথ খুঁজছে।’

নৌমন্ত্রী শাজাহান খান কলাপাড়ার টিয়াখালীতে রবিবার বেলা ১১টায় দেশের তৃতীয় পায়রা বন্দরের নবনির্মিত ওয়্যার হাউস ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন সার্ভিজ জেটির নির্মাণ কাজের। এসময় তিনি নির্মানাধীন প্রশাসনিক ভবন, রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কর্মকান্ড পরিদর্শন করেন। এরপর দুপুরে তিনি পায়রা বন্দর কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন। স্থানীয় এমপি মো: মাহবুবুর রহমান, পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এম জাহাঙ্গীর আলম বিএন, কলাপাড়ার উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব তালুকদার, মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, ইউএনও মোঃ তানভীর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালসহ নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

নৌমন্ত্রী শাজাহান খান আরও বলেন, ‘ খালেদা জিয়ার এই মামলা আওয়ামী লীগ সরকার করেনি। করেছে কেয়ার টেকার সরকার। মামলার মোটিভ দেখে তারা নিজেরাই বুঝতে পারছে পরিণতি সম্পর্কে।

উল্লেখ্য, ২০ কোটি ৯৭ লাখ ৮৯ হাজার ৭১৩ টাকা ৯০ পয়সা চুক্তিমূল্যে পায়রা বন্দরে ওয়ার হাউস নির্মাণ করা হয়েছে। পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেড এ কাজটি করে। ২০১৬ সালের ২০ এপ্রিল শুরু হয় এবং ২০১৮ সালের ১৯ জানুয়ারি কাজটি শেষ করা হয়। এছাড়া সার্ভিস জেটি নির্মাণে চুক্তিমুল্য রয়েছে ২১ কোটি ৩৮ লাখ ৮৫ হাজার ২৬৮ টাকা ৯১ পয়সা। এ বছরের ২৭ জুন এ জেটির নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। ম্যাক ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এ কাজটি করছে। এ জেটিতে পাঁচ মিটার ড্রাফট জাহাজ সরাসরি পণ্য নিয়ে ভিড়তে পারবে।