বিপুল আনন্দ উৎসবের মধ্যদিয়ে মেয়র নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত

0

 

স্টাফ রিপোর্টার ঃ পটুয়াখালীর জন মানুষের আস্থাভাজন, সকলের প্রিয় পৌর মেয়র ,জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং দৈনিক পটুয়াখালী প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলামের পৃষ্ঠপোষকতায় পটুয়াখালীতে শারদীয় দূর্গা পূজা সমাপনী দিনে  এক নৌকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে  বৃষ্টি উপেক্ষা করে নদীর দুইপাড়ে হাজার হাজার নারী, পুরুষ, শিশু, কিশোর কিশোরীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে মেয়র নৌকা বাইচ উপভোগ করেন।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় বিপুল আনন্দ উৎসবের মধ্যদিয়ে লোহালিয়া নদীতে লঞ্চঘাট এলাকা থেকে মেয়র নৌকাবাইচ এর শুভ উদ্বোধন করেন  পৌর মেয়র ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম। পৌর এলাকার ৫টি পূজা মন্দিরের নামে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা ৫টি বড় নৌকা এবং ২টি ছোট নৌকা নিয়ে মেয়র নৌকা বাইচ  অনুষ্ঠিত হয়। এতে পুরান বাজার আখড়া বাড়ি পূজা মন্ডপ দল প্রথম , ২য় হয়েছেন সবুজ সঙ্ঘ পূজা মন্ডপ দল এবং ৩য় হয়েছেন সেন্টার পাড়া হিন্দু সমাজ পূজা মন্ডপ দল  । বাইচ শেষে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন পৌর মেয়র ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম। এছাড়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীর,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  মোঃ ফয়েজ আহমেদ, সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বি এম শাহজাহান পারভেজ(শাহজাহান ভুইয়া), সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মনির খান, মেয়র নৌকাবাইচ এর কনভেনার ৫নং ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর এস এম তৌহিদ,জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অতুল চন্দ্র দাস, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এ্যাড. কমল দত্ত। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন  পৌর কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি এবং কোষাধক্ষ এস এম শাহিন, কাউন্সিলর মোঃ নিজামুল হক, তারিকুল ইসলাম লিটন, বাসু দেব কুন্ড, দেলোয়ার হোসেন আকন, মতিন মাহমুদ জাহিদ সিকদার, মোঃ বারেক হাওলাদার,মহিলা কাউন্সিলর সৈয়দা আকলেমুন্নেছা রুবী,সীমা সরকার শোভা, জাহানারা রাজ্জাকসহ, পৌর পরিষদের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ, পূজা মন্ডপ কমিটির নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে বৃস্টি উপেক্ষা করে নদীর দুইপাড়ে হাজার হাজার নারী, পুরুষ, শিশু, কিশোর কিশোরীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে মেয়র নৌকা বাইচ উপভোগ করেন এবং দু-পাড়ের মানুষের পৌরমেয়র ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলামের নিকট  দাবি প্রতিবছর যেন এই নৗকাবাইচ অনুষ্ঠিত হয়।